চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

৩৬০ কিলোমিটার উচ্চগতির বুলেট ট্রেনের পরীক্ষা চালালো জাপান

বুলেট ট্রেনের অগ্রগতির দিক থেকে জাপান বহুদূর এগিয়ে গেছে। ১৯৬৪ সালে টোকিও অলিম্পিক গেমস আয়োজনকে কেন্দ্র করে যাতায়াত ব্যবস্থার ‍সুবিধার জন্য যে বুলেট ট্রেনের যাত্রা শুরু করেছে জাপান, তা এখন অনন্য উচ্চতায় পৌঁছে গেছে।

সম্প্রতি একটি নতুন মডেলের বুলেট ট্রেনের পরীক্ষা চালিয়েছে দেশটি, যেটি ঘণ্টায় ৩৬০ কিলোমিটার (২২৪ মাইল) গতি বলে জানিয়েছে জেআর সেন্ট্রালের চালক।

এনডিটিভি’র প্রতিবেদনে বলা হচ্ছে, গত শুক্রবার মায়াবারা এবং কাইয়োটোকে সংযুক্ত করা এবং আগের সকল বুলেট ট্রেনের রেকর্ড ভেঙে দেওয়া এই ট্রেনের নাম ‘এন৭০০এস সুপ্রিম’। প্রায় এক দশক ধরে ব্যস্ততম জাপানের রেল লাইনে এটি প্রথম নতুন মডেল।

আসন্ন ২০২০ সালে টোকিও অলিম্পিক গেমসকে সামনে রেখে জাপান উচ্চ গতির এই ট্রেন পরীক্ষামূলক চালাচ্ছে। সিনকানসেন রেল কোম্পানির আগের সকল বুলেট ট্রেনের চেয়ে এই ট্রেন চলবে কম শক্তি ব্যয় করে। একই সঙ্গে এতে যুক্ত করা হয়েছে উন্নত প্রযুক্তি ও কারিগরি দিক, যা ভূমিকম্প থেকে রক্ষার্থে সহায়ক হবে। সুপ্রিম বুলেট ট্রেনটি পূর্ণরূপে চালু হওয়ার পর ঘণ্টায় ২৮৫ কিলোমিটার গতি হবে বলছে কর্তৃপক্ষ।

জেআর স্ট্রোল ২৪০ বিলিয়ন ইয়েন (২.২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার) ব্যয় করেছে এর পেছেনে। সর্বোচ গতি নিয়ে এটির পরীক্ষা চলবে চলতি বছরের মধ্য জুন পযন্ত।

অন্যদিকে জেআর কোম্পানি-ইস্ট জাপান রেলওয়ে কোম্পানি আলফা-এক্স নামের আরেকটি বুলেট ট্রেনের পরীক্ষা করছে, যেটি উত্তরের হুক্কাইডো দ্বীপের সঙ্গে টোকিওকে সংযুক্ত করার ক্ষেত্রে ঘণ্টায় নিয়মিত ৩৬০ কিলোমিটার গতিতে চলবে। ২০৩০ সালে এটি প্রবর্তন করা হবে।

সুপ্রিম বুলেট ট্রেনের এই সুবিধা শুধু দেশের যোগাযোগ ব্যবস্থার মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখতে চায় না জাপান। দেশের ট্রেন যাত্রীদের সেবা দেয়ার পাশাপাশি বিদেশি ক্রেতাদেরও আকৃষ্ট করতে চায় তারা। রপ্তানি করতে চায় বিভিন্ন দেশ।

FacebookTwitterInstagramPinterestLinkedInGoogle+YoutubeRedditDribbbleBehanceGithubCodePenEmail