চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

২০১৯ সাল সিনেমার জন্য সুন্দর যাবে: সাইমন

বছর শেষ হতে যাচ্ছে। খেড়োখাতায় হিসেব মিলাচ্ছেন অনেকেই। উল্টেপাল্টে দেখছেন লাভ লোকসানের খতিয়ান। নায়ক সাইমন সাদিকের কাছে প্রশ্ন ছিল, কেমন গেল ২০১৮ সাল? তার উত্তর ছিল, ‘যেমনটা মনে করেছিলেন, তেমনটা হয়নি। আমি মনে করি, আগামী বছরে কাঙ্ক্ষিত সাফল্য আসবে বলে। ২০১৯ সালে সিনেমার জন্য সুন্দর যাবে। আমার ক্যারিয়ারের জন্যও বছরটা শুভ হবে।’

বিজ্ঞাপন

চলতি বছর সাইমন অভিনীত দুটি সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। আগস্ট মাসে মুক্তি পেয়েছে ‘জান্নাত’, অক্টোবরে মাতাল। চিত্রনায়ক সাইমন বলেন, ‘জান্নাত’ খুব বেশী প্রশংসিত ছবি। যারা দেখেছেন, ভালো বলেছেন। আরও বেশী ছবি করতে পারতাম। কয়েকটি ছবি ছেড়ে দিয়েছি। যে ছবি হাতে নিয়েছি, কোয়ালিটি দেখেছি।

চলতি বছর মুক্তি পেয়েছে ৪০টির মতো ছবি। গেল কয়েক মাস ধরে আমদানি করে ছবি মুক্তির হিড়িক পড়েছে। এসব ছবি দর্শক দেখছে না বলে জানিয়েছেন সাইমন।

তিনি বললেন, কলকাতার ছবি আসছে কিন্তু দর্শক তো দেখছে না। আর ছবিগুলো তো লুকিয়ে লুকিয়ে আসছে, চুরির মতো। এগুলো সাময়িক। বেশি দিন চলবে না।

জাকির হোসেন রাজুর ‘জ্বি হুজুর’ ছবির মাধ্যমে চলচ্চিত্রে আসেন সাইমন সাদিক। এরপর একই নির্মাতা ‘পোড়ামন’ ছবিতে কাজ করে পরিচিতি পান। ২০১৩ সালে মুক্তি পাওয়া ওই ছবিটি ব্যাবসায়িকভাবে দারুণ সাফল্য পায়। এরপর তোমার কাছে ঋণী, মাটির পরী, ব্ল্যাক মানি, অ্যাকশন জেসমিন ছবিগুলো কাজ করে জনপ্রিয়তা পান। বর্তমানে সাইমন কাজ করছেন ‘বাহাদুরি’ ও ‘আনন্দ অশ্রু’ নামে ছবিতে।

অভিনয় ও শুটিংয়ের বাইরে হাতে যতটুকু সময় পাচ্ছেন, শরীর চর্চায় মনোযোগ দিচ্ছেন। চ্যানেল আই অনলাইনকে সাইমন জানান, গেল সপ্তাহে ‘বাহাদুরি’ ছবির পুরোপুরি কাজ শেষ করেছেন। আর ‘আনন্দ অশ্রু’ ছবির গান ও ক্লাইম্যাক্স বাকি রয়েছে।

সাইমন বলেন, মানুষের প্রেমের প্রতি দুর্বলতা আছে। আগামীতেও থাকবে। আনন্দ অশ্রু মানুষের প্রেমের সুড়সুড়ি নিয়েই বানানো। আরামদায়ক প্রেমের ছবি। অনেক প্রেমের ছবি করলেও এর মতো করিনি। মানুষ ছবিটা দেখবে। আগামী বছর আমার প্রথম ছবি মুক্তি পাবে আনন্দ অশ্রু, ভালোবাসা দিবসে।