চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

হারের আশঙ্কায় হঠাৎ করেই স্থগিত ব্রেক্সিট ভোটাভুটি

ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়া বা ব্রেক্সিট চুক্তি নিয়ে ব্রিটিশ পার্লামেন্টের ভোট স্থগিত করেছেন প্রধানমন্ত্রী টেরেসা মে।

গত ৪ ডিসেম্বর চুক্তির পক্ষে সমর্থন জোটাতে টেরেসা হাউজ অব কমনসে প্রস্তাবটি উপস্থাপন করলে ক্যাবিনেট পূর্ণাঙ্গ আইনি সুপারিশ উপস্থাপন না করায় সেটি ফিরিয়ে দেন এমপিরা। কথা ছিল, পূর্ণাঙ্গ সুপারিশ উপস্থাপনের পর আজ এর ওপর ভোটাভুটি হবে।

চুক্তি নিয়ে পার্লামেন্টে এমপিদের ভোটের নির্ধারিত সময় হঠাৎই পিছিয়ে দিয়েছেন তিনি। মূলত পার্লামেন্টের ভোটাভুটিতে ব্রেক্সিট চুক্তিটি পাস না হওয়ার আশঙ্কা বেশি থাকার কারণেই টেরেসা ভোট পিছিয়ে দিলেন বলে জানিয়েছে বিবিসি।

আর এর ফলে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে যুক্তরাজ্যের বেরিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা আরো অনিশ্চয়তায় পড়ল।

ব্রেক্সিট চুক্তি রক্ষার উদ্দেশ্যে ইউরোপীয় নেতাদের পাশাপাশি ইইউ’র সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে আগে বৈঠক করবেন বলে জানিয়েছেন টেরেসা। তিনি আগে ডাচ প্রধানমন্ত্রী মার্ক রাটে এবং জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেলের সঙ্গে কথা বলবেন; তারপর ভোটাভুটি নিয়ে সিদ্ধান্ত হবে।

টেরেসা বলেছেন, কমনসের সমর্থন পাওয়ার জন্য নর্দার্ন আয়ারল্যান্ড সীমান্ত পরিকল্পনার ব্যাপারে তাকে আরও নিশ্চিত হতে হবে।

ইউরোপীয় কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড টাস্ক অবশ্য জোর দিয়ে বলেছেন, ইইউ এ ইস্যুতে নতুন করে কোনো আলোচনা বা তর্কবিতর্কে যাবে না। তবে নেতারা নিশ্চয়ই যুক্তরাজ্যকে ব্রেক্সিট বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া সহজ করতে কীভাবে সাহায্য করা যায় তা নিয়ে আলোচনায় বসবেন।

হাউজ অফ কমনসে কবে এই ভোটাভুটি আবার হবে সে ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী কিছুই জানাননি। তবে বলেছেন ২১ জানুয়ারির আগেই ভোট হতে হবে।