চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

স্কুলছাত্র হত্যায় ৩ জনের ফাঁসির আদেশ

কুষ্টিয়ায় স্কুলছাত্র মুতাসসিম বিন মাজেদকে (হৃদয়) অপহরণের পর হত্যার দায়ে ৩ ব্যক্তিকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার কুষ্টিয়া নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মুন্সী মোঃ মশিয়ার রহমান এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন; শহরের কালিশংকরপুর এলাকার গাফফার খানের ছেলে সাব্বির খান, হাউজিং-এ ব্লকের আজম আলীর ছেলে হেলাল উদ্দিন ড্যানী ও ভেড়ামারা উপজেলার দশমাইল ক্যানেল পাড়ার মৃত মোসলেম শেখের ছেলে আব্দুর রহিম শেখ ওরফে ইপিয়ার।

রায় ঘোষণার সময় শুধু সাব্বির উপস্থিত ছিলেন। বাকি দুই আসামি পলাতক।

বিজ্ঞাপন

মামলার নথি থেকে জানা যায়, ২০১১ সালের ২৩ মে সন্ধ্যায় কুষ্টিয়া শহরতলীর মোল্লাতেঘরিয়া পূর্বপাড়া এলাকা থেকে জেলা স্কুলের অষ্টম শ্রেণির মেধাবী ছাত্র হৃদয়কে সন্ত্রাসীরা অপহরণ করে।

এর ৪ দিন পর অপহরণকারীরা হৃদয়ের মা তাসলিমা খাতুনের কাছে ফোন করে মুক্তিপণ হিসাবে ১২ লাখ টাকা দাবি করে। দেন-দরবারের পর ২ লাখ টাকার বিনিময়ে হৃদয়কে ছেড়ে দিতে সম্মত হয় অপহরণকারীরা।

তাদের কথামত, ২ জুন গোপনে নির্দিষ্ট স্থানে ২ লাখ টাকা পৌঁছে দেন হৃদয়ের মা। কিন্তু কথামত হৃদয়কে ফেরত দেয়নি তারা।

এই ঘটনায় হৃদয়ের মা বাদী হয়ে কুষ্টিয়া থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ ১০ জনকে আটক করে।

আটককৃতদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী তিন মাস পর ৩ অক্টোবর সন্ধ্যায় ভেড়ামারার ১০ মাইল এলাকার একটি ইটভাটার কাছে মাটির নিচ থেকে হৃদয়ের গলিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।