চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সৌম্য-লিটনের কাছে যা চায় বাংলাদেশ

দলের প্রয়োজনে ব্যাটিংয়ের ধরণ বদলেছেন তামিম ইকবাল। এ বাঁহাতি ওপেনার বেশিক্ষণ ২২ গজে টিকে থাকলে বাংলাদেশের স্কোরটা বড় হয়। যে কারণে তার কাছে আর আগ্রাসী ব্যাটিং নয়, দল চায় ক্রিজে স্থায়িত্ব। কয়েবছর ধরেই দারুণভাবে সেই দাবী মিটিয়ে চলেছেন তামিম। ফলে টপঅর্ডারের অপর দুই ব্যাটসম্যান সৌম্য সরকার ও লিটন দাসের কাছে চাওয়াটা একই থাকছে। সেটি হল, ভয়ডরহীন ক্রিকেট।

বিজ্ঞাপন

বিশ্বকাপে সৌম্য ও লিটনকে স্বভাবসুলভ ব্যাটিং করার স্বাধীনতাই দিতে চান মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা। একইসঙ্গে বাংলাদেশের অধিনায়ক চাওয়া ধারাবাহিকতাও।

বিজ্ঞাপন

‘তামিমকে আমরা যে ভূমিকা দিয়েছি লম্বা সময় ব্যাট করার, ও লম্বা সময় ব্যাট করলে আমাদের রানটা বড় হয়। একশো করলে আমাদের তিনশোর কাছে যায়, তিনশোও হয়েছে কয়েকটা ম্যাচে। তামিম খেলার ধরণ পাল্টেছে দলের জন্য। এখন ফোকাস করে ৪০ ওভার ব্যাট করার। ৫০ ওভারও বলি কখনো কখনো। তামিমকে যখন এই ভূমিকা দিচ্ছি, তখন বাকীদের লিটন বা সৌম্যকে ওই স্বাধীনতা দিতে হয় যাতে শটস খেলতে পারে।’

‘নিউজিল্যান্ডে লিটন তিন ম্যাচেই মারতে গিয়ে আউট হয়েছে। সমালোচনা কিন্তু হয়েছে। তবে আমাদের দিক থেকে ওর উপর কোনো চাপ ছিল না। কারণ দল চেয়েছে ওরা ফ্রি ক্রিকেট খেলুক। এরমানে এই না যে ফ্রি ক্রিকেট খেলতে গিয়ে আউট হবে। বীরেন্দ্র শেবাগ বা গিলক্রিস্টকে দেখেন, ওরা মারত কিন্তু ধারাবাহিকতা ছিল। ওদেরকেও (সৌম্য-লিটন) এটা মানিয়ে নিয়ে করতে হবে। ওরা যদি পারফর্ম করতে পারে তাহলে দলের জন্য ভালো হবে।’

সৌম্য-লিটন দুজনের হাতেই রয়েছে দুর্দান্ত সব শটস। তাদের কাছে সহজাত ব্যাটিংই প্রত্যাশা বাংলাদেশ দলের। নিজের দিনে কতটা ভয়ঙ্কর হতে পারেন তারা নিকট অতীতেই দেখিয়েছেন সেটি।