চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সোলারি: রিয়াল সমর্থক, মেসির ফ্যান!

হুলেন লোপেতেগিকে বরখাস্ত করে অস্থায়ী কোচ হিসেবে সান্টিয়াগো সোলারিকে নিয়োগ দিয়েছেন রিয়াল মাদ্রিদ। খেলোয়াড়ি জীবনে রিয়ালের হয়ে খেললেও বার্সেলোনার লিওনেল মেসির প্রতি সবসময়ই শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন সোলারি। তিনি রিয়াল মাদ্রিদ সমর্থক হলেও মেসির একজন বড় ফ্যান!

সান্টিয়াগো বার্নাব্যুর ‘কাস্তিয়া’ নামে পরিচিত রিয়ালের ‘বি’ দলের কোচ হওয়ার আগে একটি দৈনিক পত্রিকার নিয়মিত কলামিস্ট ছিলেন এ আর্জেন্টাইন। স্বদেশি তারকার প্রতিভার বিষয়টি নিজের একাধিক লেখায় তুলে ধরেছেন সোলারি।

বিজ্ঞাপন

একটি লেখায় সোলারি বলেছিলেন, ‘যেভাবে ঝড়, বিদ্যুৎ বা হারিকেন বায়ুমণ্ডলীয় ঘটনাগুলো ঘটে, একই অবস্থা হয় মেসির স্কোরের ক্ষেত্রেও। মেসি যখন বল ধরেন তখন প্রতিটি সময় পৃথিবী কেঁপে ওঠে, প্রত্যেকেই নীরব থাকে, প্রতিদ্বন্দ্বী কোচরা কাঁধের মধ্যে তাদের মাথা ডুবিয়ে রাখে এবং তাদের হাত পকেটে রাখে। দেখে মনে হয়, তারা ওই ব্যক্তি যিনি বিদ্যুৎ চমকানো দেখছেন এবং বজ্রধ্বনির জন্য অপেক্ষা করা ছাড়া তার আর কোনো উপায় নেই। কয়েক সেকেন্ড থরথর অবস্থায় থাকার পর তারা গোলের আওয়াজ শুনতে পান।’

মেসি চতুর্থবার যখন ব্যালন ডি’অর পুরষ্কার জেতেন, তখন কে সেরা খেলোয়াড় এই প্রশ্নে সোলারির মতামত রীতিমতো বিতর্ক তৈরি করেছিল। তিনি বলেছিলেন, ‘মেসি এবং ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর মধ্যে পার্থক্য হল ব্যালন ডি’অর অ্যাওয়ার্ডস। ক্রিস্টিয়ানো সেরা খেলোয়াড় কারণ, মেসি অন্য একধরনের ফুটবল খেলে।’

বিজ্ঞাপন

তিনি আরও বলেছিলেন, ‘তার সম্পর্কে একটা বিষয়ই সত্যি, তাহল অবিশ্বাস্য ব্যাপার। গত চার থেকে পাঁচ বছর তার যে অসাধারণ ধারাবাহিকতা, সেটা থামানো অসম্ভব। আসলে সে অন্যগ্রহের।’

কয়েক বছর আগে লা লিগা’র জন্য দেয়া এক সাক্ষাতকারে সোলারি ফুটবল ইতিহাসের সর্বকালের সেরাদের সঙ্গে মেসির তুলনা করেন। যার মধ্যে ছিলেন পেলে ও ম্যারাডোনা।

অবশেষে, ২০১৬ সাল, তখন রিয়ালের ‘বি’ দলে কাজ করেন স্কোলারি, সেময় তার স্বদেশি রিয়াল মাদ্রিদের পক্ষে খেলতে পারেন বলে ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন। বলেছিলেন, ‘মেসি একটি যুগের সাক্ষী। কিন্তু আমাদের জন্য (রিয়াল) দুর্ভাগ্যজনক কারণ, এটা সে করছে বার্সেলোনায়। আশা করি, তিনি রিয়াল মাদ্রিদে আসবেন।’

মেসিকে নিয়ে ফ্যান সোলারির অন্য মন্তব্যগুলোর মধ্যে ছিল, ‘ব্যালন ডি’অর অ্যাওয়ার্ড মেসির। কিন্তু এর চেয়ে বেশি কিছুর দাবিদার তিনি। তবে আর্জেন্টাইন হিসেবে আমি খুবই খুশি। রিয়াল মাদ্রিদ সবসময় সেরাটা পেতে চায়, কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে তারা মেসিকে পায়নি।’