চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝিতে বন্যার আশঙ্কা

চলতি মাসের মাঝামাঝি সময়ে দেশের উত্তর ও মধ্যাঞ্চলে স্বল্প মেয়াদে মাঝারি ধরনের বন্যার আশঙ্কা করছে পানি উন্নয়ন বোর্ডের বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র।

ভারতের আসামে মাঝারি থেকে ভারী বর্ষণের প্রভাবে এই পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

দেশের প্রধান তিন নদী পদ্মা-ব্রক্ষ্মপুত্র এবং মেঘনার ভারতীয় অংশে গতবছর রেকর্ড পরিমাণ বৃষ্টির কারণে জুলাইয়ের তৃতীয় ও আগষ্টের দ্বিতীয় সপ্তাহে বন্যা দেখা দিয়েছিলো। যা ছিলো অনেকটাই অস্বাভাবিক।

বাংলাদেশ ও ভারতের আবহাওয়া বিশ্লেষণ করে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ৪ থেকে ৫ দিন পর মাঝারি থেকে ভারী বর্ষণের পূর্বাভাস রয়েছে ভারতের আসামে। এসময় ব্রহ্মপুত্রের আসাম অংশে গৌহাটিতে ও অরুণাচলের দীব্রগড় পয়েন্টে নদীর পানি বিপদসীমা অতিক্রম করতে পারে। এর প্রভাবে পানি বাড়তে পারে কুড়িগ্রামের নুনখাওয়া পয়েন্টে।

বাড়তে পারে বাহাদুরাবাদ পয়েন্টে পদ্মার পানিও। ১২ সেপ্টেম্বর থেকে পদ্মা-ব্রহ্মপুত্র-যমুনা-তিস্তা সংলগ্ন অঞ্চল বন্যায় আক্রান্ত হবার আশঙ্কার কথা জানিয়েছে বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ব্রহ্মপুত্র-যমুনা নদীর নুনখাওয়া, চিলমারি, সারিয়াকান্দি, সিরাজগঞ্জ ও বাহাদুরাবাদের মতো স্পর্শকাতর পয়েন্টে নদীর পানি বিপদসীমা অতিক্রম করে উত্তরের জেলা কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, সিরাজগঞ্জ, বগুড়া ও মধ্যাঞ্চলের জামালাপুর, টাঙ্গাইল, ফরিদপুর, শরিয়তপুর, মানিকগঞ্জে বন্যা হতে পারে।

ইতোমধ্যে ভারতের কেরালার বন্যা শতবছরের রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। আর চীনের ইয়াংগুনেও চলছে তীব্র বন্যা। তবে ভারত ও চীনের বন্যা পরিস্থিতি বাংলাদেশে কোন বিরূপ প্রভাব ফেলবে না বলছেন সংশ্লিষ্টরা।

আরও দেখুন ভিডিও রিপোর্টে:

FacebookTwitterInstagramPinterestLinkedInGoogle+YoutubeRedditDribbbleBehanceGithubCodePenEmail