চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সীতাকুণ্ডে বিবিসি’র শিপ ব্রেকিং ইয়ার্ড নির্মাণে নিষেধাজ্ঞা

আইন ও আদালতের নির্দেশ লঙ্ঘন করে সীতাকুণ্ডের উত্তর ছলিমপুরের সাগর উপকূলের সংরক্ষিত বনাঞ্চলে বিবিসি স্টিল লিমিটেডের শিপ ব্রেকিং ইয়ার্ড নির্মাণ কাজে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন হাইকোর্ট।

সেই সঙ্গে শিপ ব্রেকিং ইয়ার্ডের জন্য বিবিসি স্টিলকে জেলা প্রশাসনের দেওয়া ইজারা চুক্তির কার্যকারিতা ছয় মাসের জন্য স্থগিত করা হয়েছে।

বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা) এর জনস্বার্থে করা এক রিটেত শুনানি নিয়ে সোমবার বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এ আদেশ দেয়।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান। তাকে সহযোগিতা করেন মিনহাজুল হক চৌধুরী ও সাঈদ আহমেদ কবীর (সৌরভ)।

৭০ এর দশক থেকে বিভিন্ন সময় সীতাকুণ্ডের ৬২৭ একর খাসজমি উপকূলীয় বনায়নের জন্য বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করে ভূমি মন্ত্রনালয়। যা পরবর্তীতে বন আইন ১৯২৭’র ২০ ধারা অনুযায়ী সংরক্ষিত বনাঞ্চল ঘোষণা করে বিভিন্ন সময় বিজ্ঞপ্তি জারি করে।

কিন্তু চলতি বছরের ২১ মার্চ মার্চ উত্তর ছলিমপুর সংরক্ষিত বনাঞ্চলের ৭.১০ একর জায়গা শিপ ব্রেকিং ইয়ার্ড নির্মাণে বিবিসি স্টিল লিমিটেডকে চট্টগ্রামের জলো প্রশাসন লিজ দেয়। এর বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে গত ২৮ এপ্রিল এ রিট আবেদন করে বেলা। সে অবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে হাইকোর্ট আজ রুল সহ আদেশ দেন।

আদালত তার রুলে, সীতাকুণ্ডের উত্তর ছলিমপুর মৌজার ৭.১০ একর প্রজ্ঞাপিত বনভূমি ‘শিপ ব্রেকিং ইয়ার্ড’ নির্মাণে ইজারা দেওয়া কেন অবৈধ, আইন বহির্ভুত ও জনস্বার্থবিরোধী ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়েছেন।

পরিবেশ সচিব, শিল্প সচিব, ভূমি সচিব, প্রধান বন সংরক্ষক, পরিবেশ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক, চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার, বিভাগীয় বন অফিসার (কোস্টাল ফরেস্ট ডিপার্টমেন্ট), পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালক (চট্টগ্রাম বিভাগ), সীতাকুণ্ড উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা, সীতাকুণ্ডের সহকারী কমিশনার (ভূমি),বিবিসি স্টিল লিমিটেডের সত্বাধিকারী মো. কাশেম রাজাকে চার সপ্তাহের মধ্যে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।