চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সিলগালা হবে বিজিএমইএ ভবন

রাজধানীর হাতিরঝিল লেকে অবৈধভাবে নির্মিত বহুতল বিজিএমইএ ভবন বিকেল পাঁচটায় সিলগালা করা হবে। ভবনটিতে থাকা বিভিন্ন অফিসের মালামাল সরাতে দুই দফা বেঁধে দেয়া সময় শেষ হবার পরই আবারও বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত সময় দিয়েছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। 

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার দুপুরে এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন রাজউকের পরিচালক খন্দকার অলিউর রহমান।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, ভবনে অফিস অপসারণের কাজ চলছে। বার বার তাদের সময় দেয়া সত্ত্বেও নানা অজুহাতে এখান থেকে অফিস সরানো হয়নি। আমরা আজ ২ ঘণ্টা দিয়েছিলাম মালামাল সরিয়ে নিতে যা ১২টায় শেষ হয়।

তারা অনেকটা কাজ সম্পন্ন করেছে। পরে দ্বিতীয় দফা সময় দেয়া হয়। এখনও কাজ শেষ না হওয়ায় বিকেল ৫টা পর্য়ন্ত সময় চায় আমরা সম্মতি দিয়েছি। এ সময়ের মধ্যে তারা তাদের অফিস অপসারনে ব্যর্থ হলে বিকেল ৫টার পরই আমরা বিজিএমইএ ভবন সিলগালা করে দেয়া হবে।

অলিউর রহমান বলেন, আইনের ভিত্তিতে আমরা বিজিএমইএ ভবনের অফিস অপসারনের কাজ শুরু হয়েছে। আমরা য়ে ভবন অপসারন শুরু করেছি এটাও ভবন ভাঙার অংশ। তাছাড়া এখানে টেকনিক্যাল ও ম্যানেজমেন্টের বিষয় আছে এগুলো শেষ হলেই আমরা ভবন ভাঙার কাজ শুরু করব। খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে এ কাজ শেষ করতে পারব এ কাজে মূল সহযোগি হবে চায়না এক্সপার্টরা।

হাতিরঝিল প্রকল্পের পরিচালক রায়হান ফেরদৌস বলেন, মালামাল সরানোর পর আমরা ইউলিটি সেবা বন্ধ করে দেয়ার মাধ্যমে ভবন ভাঙার কাজ শুরু করেছি। সেনাবাহিনী সহায়তায় এ ভবনটি অপসারণের কাজ করা হবে। এর আগে র‌্যাংগস ভবন ভাঙ্গতে যেয়ে প্রাণহানি ঘটে। তবে এ ভবন ভাঙ্গতে ডিনামাইট বা নিয়ন্ত্রিত বিস্ফোরণ পদ্ধতি ব্যবহার করা হবে। এ কাজে সহায়তা করবে চায়না এক্সপার্টরা।