চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সাধারণ জনতা খুঁজে দিল ম্যানহোলে নিখোঁজ যুবকের মরদেহ

ফায়ার সার্ভিসের অনুমান ভুল প্রমাণ করে সাধারণ জনতা খুঁজে দিল রাজধানীর মিরপুরে ময়লা পরিষ্কার করতে ম্যানহোলে নামা অজ্ঞাত পরিচয় যুবকের মরদেহ।

বিজ্ঞাপন

বুধবার বিকেলে ওই যুবকের মরদেহ স্থানীয় জনতার সাহায্যে উদ্ধার করা হয় বলে চ্যানেল আই অনলাইনকে নিশ্চিত করে ফায়ার সার্ভিস সদর দফতরের স্টেশন অফিসার আল মাসুদ।

প্রায় ২৪ ঘণ্টা আগে নিখোঁজ হওয়া ওই যুবকের মরদেহ ড্রেনে প্রবাহমান পানির উল্টা দিকে প্রায়  ৫০ ফুট দূরে পাওয়া যায়। এর আগে প্রায় ২২ ঘণ্টা খোঁজাখুঁজি করেও নিখোঁজ যুবকের সন্ধান পেতে ব্যর্থ হয় ফায়ার সার্ভিস।

উদ্ধার অভিযানের এক পর্যায়ে স্থানীয় জনতা ফায়ার সার্ভিসকে পানির স্রোতের উল্টো দিকে অনুসন্ধান করতে অনুরোধ জানায়। কিন্তু সেই অনুরোধে সাড়া দেয়নি ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা। পরে স্থানীয়রাই উল্টোদিকের আরেকটি ম্যানহোলের ঢাকনা উঠিয়ে নিচে নামে। ১৫-২০ মিনিট খোঁজাখুঁজির পর বেলা সাড়ে তিনটার দিকে মরদেহের সন্ধান পায় তারা।

বিজ্ঞাপন

উদ্ধারে অংশ নেয়াদের একজন সেলিম চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, গতকাল থেকেই আমরা কয়েকজন ফায়ার সার্ভিসকে সহায়তা করেছি। আমাদের সন্দেহ ছিল একটা মানুষ ডুবে গেলেও বেশি দূর যাবে না। তাই ফায়ার সার্ভিসের কর্মীদের উল্টোদিকেও খোঁজার অনুরোধ করেছিলাম। কিন্তু তারা অল্প একটু খুঁজে আর খুঁজেনি।  আজকে তাই আমরা অনেকটা চ্যালেঞ্জ নিয়েই উল্টাদিকে ম্যানহোল খুলে নিচে নামি।

“যে ম্যানহোলে পড়ে সে নিখোঁজ হয়, তার উল্টোদিকে অনেক দূরে এসে ময়লার সঙ্গে আটকে ছিল। সবমিলিয়ে অন্তত লাশটাতো পাওয়া গেল, এটা ভেবেই ভাল লাগছে”।

উদ্ধার কাজ শেষে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা উদ্ধারে অংশ নেয়ার জন্য সাধারণ জনগণকে ধন্যবাদ জানান। পরে লাশটি রূপনগর থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

রূপনগর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) বলেন, লাশটি থানায় নিয়ে আসা হয়েছে, তারপর ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক হাসপাতালে পাঠানো হবে।

মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে চারটার দিকে মিরপুর ৭ নম্বর সেকশনের চলন্তিকা এলাকার জিতা গার্মেন্টসের পাশের একটি ম্যানহোলে নেমে ওই পরিচ্ছন্নতাকর্মী নিখোঁজ হন।

বিকেল পৌনে ৫টায় উদ্ধার কার্যক্রম শুরু করে ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিট। এরপর তাকে উদ্ধার করা সম্ভব না হলে রাত ১০টায় মিরপুর ফায়ার সার্ভিস অভিযান স্থগিতের ঘোষণা দেন।