চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সবুজ গাছে ঘর বাড়ি

একটু খানি নির্মল বাতাস আর সবুজের ছোঁয়া তো সবাই পেতে চায়। কিন্তু সে উপায় কি আর আছে? চারদিকে বায়ু দূষণ যেন পাল্লা দিয়ে বাড়ছে। শ্বাস গ্রহণের সাথে সেই দূষিত বায়ু প্রবেশ করছে শরীরে। তাহলে উপায়?

উপায় অবশ্য আছে। এমন কিছু ছোট ছোট গাছ আছে যেগুলো বাতাসের ক্ষতিকর উপাদানকে ধ্বংস করে বায়ুকে নির্মল করে। আর সবচেয়ে বড় সুবিধা হল টবে করে এ গাছগুলো রাখতে পারেন আপনার শোবার ঘরেও।

আপনি পাচ্ছেন বিশুদ্ধ বায়ুর নিশ্চয়তা। ঠিক যেন ‘ফুলের গন্ধে ঘুম আসে না’। চলুন তেমন তিনটি ফুল গাছের কথা জেনে নেই।

অর্কিড

অর্কিড

বিশুদ্ধ বায়ু পেতে অর্কিডের জুড়ি নেই।অর্কিড বাতাসকে ক্ষতিকর জাইলেম থেকে রক্ষা করে।

অর্কিডের দারুণ এক বিশিষ্টতা আছে। অন্য অনেক গাছের মতো অর্কিডও রাতের বেলা অক্সিজেন ছাড়ে। আর অর্কিডের কিন্তু অতোটা যত্ন আত্তির দরকার পড়ে না। নিজেই বেড়ে উঠতে পারে নিজের মতো করে।

তাই আপনার শোবার ঘরেই রাখুন না একটা ডেনড্রডিয়াম অর্কিড।

পিস লিলি

পিস লিলি

বায়ুকে নির্মল করতে পিস লিলির জুড়ি নেই। বাতাসের মধ্যে ‘টক্সিন’ নামে বেশ কিছু ক্ষতিকর উপাদান থাকে। পিস লিলি অবলীলায় বায়ু থেকে টক্সিন দূর করে আপনাকে দেবে সুরক্ষা। নির্মল আর বিশুদ্ধ বায়ু পেতে চাইলে ঘরে রাখুন পিস লিলি। আর উপভোগ করুন শান্তির সুবাতাস।

পিস লিলি খুব সহজেই বেড়ে ওঠে আর গ্রীষ্মে মিষ্টি ঘ্রাণ ছড়িয়ে চারদিক করে সুবাসিত।

এন্থুরিয়াম

এন্থুরিয়াম

গন্ধ আর রূপে অনন্য এন্থুরিয়াম। এন্থুরিয়ামের পাতা ক্ষতিকর অ্যামোনিয়া ধ্বংস করে। কেবল আপনার ঘর নয়, অফিসেও রাখতে পারেন একটা এন্থুরিয়ামের গাছ। ফেমিনা