চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শৈশবের ‘ইনফেকশন’ প্রভাব ফেলে মানসিক স্বাস্থ্যে

বাড়ছে শীতের প্রকোপ। এ সময় একটুতেই ঠান্ডা লেগে অসুস্থ হয়ে যেতে পারে শিশুরা। এমনকি আক্রান্ত হতে পারে শ্বাসকষ্ট, খিঁচুনি, জন্ডিসসহ ইনফেকশন বা সংক্রামক ব্যাধিগুলোতে। বিষয়টি নিয়ে সচেতন থাকুন। কারণ এক গবেষণায় উঠে এসেছে , শৈশবের এই ধরণের সংক্রামক রোগ শিশুর মানসিক বিকাশে বাঁধার সৃষ্টি করে।

সম্প্রতি ডেনমার্কের আরহুস বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক বলেছেন,‘শিশুদের শৈশবকালে গুরুতর সংক্রমণ মানসিক ব্যাধিগুলির ঝুঁকি বাড়ায়’।

বিজ্ঞাপন

সেখানে বলা হয়েছে বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগীর মধ্যে প্রায় ৮৪ শতাংশের বেশি মানসিক ব্যাধি ধরা পড়ে এবং তাদের মধ্যে ৪২ শতাংশ কোন না কোন সময় সাইকোট্রপিক (মানসিক রোগের জন্য ব্যবহৃত ওষুধ) ব্যবহার করেছে।
শিশুদের মানসিক স্বস্থ্যের সংক্রামক রোগের ঝুঁকির বিষয়টি প্রথম জেএএমএ সাইক্রেটি তাদের গবেষণা জার্নালে প্রকাশ করেন।

বিজ্ঞাপন

প্রায় ১০ লাখ মানুষের মানসিক স্বাস্থ্যের ওপর করা হয়েছে এ গবেষণা। এখানে তাদের জন্ম থেকে কৈশোর পর্যন্ত বিভিন্ন সময় মানসিক ইতিহাস ঘেটে দেখা হয়েছে।

সেখানে বেরিয়ে এসেছে, শৈশবের কোন একটা সময়ে কোন শিশু কোন সংক্রামক রোগে আক্রান্ত হয়ে থাকলে, এবং মানসিক ব্যাধির জন্য ওষুধ সেবন করলে তাদের মানসিক ঝুঁকি বাড়ে।

এর দ্বারা সিজোফ্রেনিয়া স্পেকট্রাম, অবসেসিভ কমপালসিভ ডিসঅর্ডার, মানসিক এবং ব্যক্তিত্ব বিকাশের ডিসঅর্ডার, বিভিন্ন মানসিক প্রতিবন্ধকতা, অটিজম ডিসঅর্ডার, মনোযোগের ঘাটতি জনিত হাইপার একটিভিটি ডিসঅর্ডার, অপজিশনাল ডিফ্যান্ট ডিসঅর্ডার,টাই ডিসঅর্ডার মতো মানসিক ব্যাধি গুলো একটা মানুষের মধ্যে তীব্রতা পেতে পারে।