চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শুধু ডাকসু নির্বাচনের আগে না, ক্যাম্পাসে স্থায়ী সহাবস্থান চায় ছাত্রদল

শুধু ডাকসু নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সহাবস্থান নয়, সবসময়ই ক্যাম্পাসে সহবস্থানে থেকে নিজেদের রাজনৈতিক কার্যক্রম পরিচালনা করতে চায় জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল।

১১ মার্চ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে দীর্ঘ ৯ বছর পর কেন্দ্রীয় ও বিশ্ববিদ্যালয় নেতাদের নেতৃত্বে বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় দিনের মত মধুর ক্যান্টিনে আসে ছাত্রদলের প্রায় ৩০ জন নেতাকর্মী।

বিজ্ঞাপন

দুপুরে সাংবাদিকদের সামনে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সভাপতি রাজিব আহসান বলেন: শুধু ডাকসু নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আমরা ক্যাম্পাসে সহাবস্থান চাই না, আমরা সবসময় ক্যাম্পাসে আসতে চাই। আমাদের কর্মীরা যেনো বিনা বাধায় হলে অবস্থান করতে পারে সেটির নিশ্চয়তা চাই। আমরা সবসময় ক্যাম্পাসে আমাদের রাজনৈতিক কার্যক্রম চালিয়ে যেতে চাই।

এর আগে দীর্ঘ বিরতির পর বুধবার প্রথমবার মধুর ক্যান্টিনে এসে রাজিব বলেছিলেন: ডাকসু নির্বাচন নিয়ে আমরা যে ৭ দফা দাবি দিয়েছিলাম, সেটি না মেনেই তফসিল ঘোষণা করায় আমরা আশাহত হয়েছি। আমরা প্রশাসনের কাছে আহ্বান জানাই আমাদের দাবিগুলো যেন মেনে নেয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

দাবি না মানলে নির্বাচন বয়কট করবেন কিনা, জানতে চাইলে সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান বলেন, আমরা প্রশাসনের উপর আস্থা রাখতে চাই। আমরা এভাবেই সামনে এগোতে চাই। শেষ পর্যন্ত যেতে চাই।

আকরামুল আরও বলেন, আমাদের ৭ দফা দাবি ছিল। তার মধ্যে অন্যতম দাবি ছিল সহাবস্থান। সেটির যাত্রা শুরু হয়েছে। আমরা প্রশাসনের নিকট বিশ্বাস রাখি আমাদের বাকি দাবিগুলোও তারা মেনে নিবে। ভোটকেন্দ্র একাডেমিক ভবনে স্থানান্তর করে একটি বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন উপহার দেবে বলে আমরা মনে করি।

১১ মার্চ ডাকসু নির্বাচন সামনে রেখে সাধারণ শিক্ষার্থীদের সাথে সম্পৃক্ততা বাড়াতে এখন থেকে নিয়মিত মধুর ক্যান্টিনে তারা আসবে বলেও জানান নেতাকর্মীরা।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন ছাত্রদলের বিশ্ববিদ্যালয় শাখা সভাপতি আল মেহেদী তালুকদার ও সাধারণ সম্পাদক আবুল বাশার সিদ্দিকীসহ বিভিন্ন হলের নেতাকর্মীরা।