চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শহীদ জুয়েল-মোশতাকের জন্য ক্রিকেট ম্যাচ

প্রতিবারের মতো এবারও বিজয় দিবসে ক্রীড়াঙ্গনের দুই শহীদ স্মরণে প্রদর্শনী ক্রিকেট ম্যাচের আয়োজন করছে বিসিবি। শহীদ জুয়েল ও শহীদ মোশতাক একাদশে ভাগ হয়ে খেলবেন বাংলাদেশ দলের সাবেক ক্রিকেটাররা।

বিজয় দিবসের সকালে, ১০.৩০ মিনিটে মিরপুর শের-ই-বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে গড়াবে টি-টুয়েন্টি ফরম্যাটের এই ম্যাচটি। শনিবার সেজন্য দলও ঘোষণা করেছে বিসিবি।

বিজ্ঞাপন

শহীদ জুয়েল এবং শহীদ মোশতাক, দুই ক্রীড়াপাগল মানুষ। প্রথমজন ক্রিকেটার, দ্বিতীয়জন সংগঠক। ২৫ মার্চ কালরাতে হানাদাররা নৃশংসভাবে হত্যা করে নির্মল মনের ক্রীড়াপাগল মোশতাক আহমেদকে।

আর আবদুল হালিম চৌধুরী (জুয়েল) মুক্তিবাহিনীর দুর্ধর্ষ ক্র্যাক প্লাটুনের সদস্য। এই গেরিলা বাহিনীতে ছিলেন রুমি, বদিউজ্জামান, আলম, পুলু, সামাদ, আজাদের মতো দেশের জন্য আত্মত্যাগী তরুণরা। মগবাজারে সুরকার আলতাফ মাহমুদের বাসা থেকে ২৯ আগস্ট হানাদাররা আহত অবস্থায় জুয়েলকে ক্যাম্পে ধরে নিয়ে যায়।

বিজ্ঞাপন

এক সময় হত্যা করা হয় স্বাধীন বাংলাদেশের বড় ক্রিকেট তারকা হওয়ার রসদ জমে থাকা জুয়েলকে। একইরাতে পাকিস্তানীদের হাতে ধরা পড়া আজাদ, রুমি, বদি, আলতাফ মাহমুদসহ অনেকে আর ফেরেননি।

প্রতি বিজয় দিবসে এই দুই নায়ককে স্মরণের শ্রদ্ধামঞ্চ হয়ে ওঠে মিরপুরের হোম অব ক্রিকেটের সবুজ গালিচা। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) আয়োজনে হয় শহীদ জুয়েল-শহীদ মোশতাক প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচ। শের-ই-বাংলার প্রতিটি ইঞ্চি হয়ে ওঠে সাবেক ক্রিকেটারদের মিলনমেলার মঞ্চ।

শহীদ জুয়েল একাদশ: হাবিবুল বাশার, হান্নান সরকার, আকরাম খান, মিনহাজুল আবেদিন নান্নু, ফারুক আহমেদ, হাসিবুল হোসেন শান্ত, মাহমুদুল হাসান রানা, মোহাম্মদ আলী, এনামুল হক মনি, এহসানুল হক সেজান, মোহাম্মদ সেলিম, নেসার আহমেদ নাসু, মঞ্জুরুল ইসলাম, সজল চৌধুরী।
ম্যানেজার: আজহার হোসেন শান্ত
কোচ: দিপু রায় চৌধুরী

শহীদ মোশতাক একাদশ: মেহরাব হোসেন অপি, জাহাঙ্গীর আলম, হাসানুর রশিদ লিটন, আনোয়ার হোসেন, মুশফিকুর রহমান, মোহাম্মদ রফিক, হাসানুজ্জামান ঝরু, জাভেদ ওমর বেলিম, আনোয়ার হোসেন মনির, খালেদ মাসুদ পাইলট, মোরশেদ আলী খান, সাইফুদ্দীন বাবু, মিজানুর রহমান বাবলু, ফয়সাল হোসেন ডিকেন্স।
ম্যানেজার: এএসএম রফিকুল হাসান
কোচ: ওয়াহেদুল গণি