চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘শতভাগ ফিট’ হয়েই খেলছেন তাসকিন

গোড়ালির চোট কাটিয়ে ফিরেছেন তাসকিন আহমেদ। প্রত্যাবর্তনের ম্যাচে অবশ্য নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি এ পেসার। প্রিমিয়ার লিগ টেবিলের শীর্ষে থাকা রূপগঞ্জের হয়ে তলানির দল উত্তরার বিপক্ষে ৫ ওভারে দেন ৩৬ রান। আড়াই মাস পর নেমে করেন প্রচুর শর্ট বল। লেন্থ দুর্বল হওয়ায় গতির ফায়দা নেয় প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যানরা। লো-স্কোরিং ম্যাচে খরুচে বোলিংয়ের পর প্রশ্ন উঠেছে, তাসকিন পুরোপুরি ফিট তো?

বিজ্ঞাপন

বিপিএলে দুর্দান্ত বোলিং করা তাসকিনকে স্বরূপে দেখা যায়নি চোট থেকে ফেরার পর। লিগে নেমে প্রথম ম্যাচে ছিলেন নিজের ছায়া হয়ে। তাতে সংশয় জেগেছিল বিশ্বকাপ দলে জায়গা পাওয়ার দাবি জানাতে একটু আগেভাগেই নিজেকে প্রমাণের চ্যালেঞ্জে নেমে গেলেন না তো তাসকিন! শনিবার মিরপুরের একাডেমি মাঠে অনুশীলনের পর সংশয় দূর করে রূপগঞ্জ কোচ আফতাব আহমেদ জানালেন, পুরোপুরি ফিট বলেই খেলছেন তাসকিন।

‘তাসকিন এখন শতভাগ ফিট বলেই ওকে খেলানো হচ্ছে। আমাদের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার একটি সুযোগ আছে, ভালো পজিশনে আছে দল। এখন যদি ও (তাসকিন) ৭০ ভাগ ফিট থাকতো তাহলে আমরা এই সুযোগটি নিতাম না। যেহেতু আমাদের একটি সুযোগ আছে, আমাদের এখানে ঝুঁকি নেয়ার সুযোগ থাকছে না।’

‘অবশ্যই ওর প্রচেষ্টা অনেক ভালো, আজকেও দেখছেন আপনারা। শতভাগ দিয়ে বোলিং করছে। প্রথম স্পেলে ৫ ওভার বোলিং করেছে, এখন আবার বোলিং করছে। সবমিলিয়ে যদি সবকিছু ঠিক থাকে, আর দলের একটি সমন্বয়ের ব্যাপার আছে, সব মিলিয়ে যদি ঠিক থাকে সবকিছু, তাহলে সমস্যা হবে না।’

বিজ্ঞাপন

চ্যাম্পিয়ন হওয়ার দৌড়ে অনেকটা এগিয়ে আছে রূপগঞ্জ। ১১ ম্যাচে দশ জয়ে ২০ পয়েন্ট নিয়ে শেষ করেছে প্রথমপর্ব। সেরা ছয়ের সুপার লিগে নামার আগে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা আবাহনীর চেয়ে ৪ পয়েন্টে এগিয়ে। একসময়ের মারকুটে ব্যাটসম্যান আফতাব অবশ্য এখনই শিরোপার কথা ভেবে আলাদা চাপ তৈরি হতে দিতে চান না দলের মাঝে।

আফতাব আহমেদ

সোমবার সুপার লিগে নিজেদের প্রথম ম্যাচে রূপগঞ্জের প্রতিপক্ষ ধুঁকতে ধুঁকতে সেরা ছয়ে ঠাঁই পাওয়া মোহামেডান। গত আসরে সাদা-কালোদের সহকারী কোচের দায়িত্ব সামলেছেন আফতাব। এবার রূপগঞ্জের প্রধান কোচ তিনি। মাঠে নামার আগে এই ম্যাচ নিয়ে তার ভাবনা কেবলই আরেকটা জয়ের।

‘প্রথম থেকেই একটা কথা বলে আসছি, শিরোপার জন্য কখনোই আমরা সুযোগ নেইনি। আমাদের লক্ষ্যই হচ্ছে ওয়ান বাই ওয়ান। আমাদের স্লোগানই হচ্ছে এটি, ওয়ান বাই ওয়ান। আমাদের স্ট্যাটাসেও দেখবেন এটি- ওয়ান বাই ওয়ান। সুতরাং আমরা কার বিপক্ষে খেলছি সেটি দরকার নেই। আমাদের লক্ষ্যই হচ্ছে দুই পয়েন্ট।’

‘আমরা যখন পরবর্তীতে সুপার লিগ শুরু করতে যাবো, সেটি কঠিন পজিশন, কঠিন সময়ে সবাই খুব ভালো খেলেই সুপার লিগে উঠেছে। সুতরাং তাদের (মোহামেডান) সাথে ম্যাচ বলে হালকা হওয়ার সুযোগই নেই। লক্ষ্য থাকবে জিতে পরবর্তী ম্যাচের কথা চিন্তা করা।’