চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

শঙ্কামুক্ত মরগান, বিজয়কে নিয়ে স্বস্তিতে ভারত

বিশ্বকাপ শুরুর এক সপ্তাহেরও কম সময় আগে অধিনায়ক ইয়ন মরগানের চোট নিয়ে চিন্তায় পড়েছিল ইংল্যান্ড। তবে দুশ্চিন্তায় থাকা ইংলিশদের সুসংবাদ দিয়েছে সেদেশের ক্রিকেট বোর্ড। ইসিবি জানিয়েছে, বিশ্বকাপের আগেই ফিট হয়ে উঠবেন মরগান।

বিজ্ঞাপন

সুসংবাদের টাটকা বাতাস ভারতীয় শিবিরেও। চোট গুরুতর নয়। কোনওরকম চিড়ও ধরেনি অলরাউন্ডার বিজয় শংকরের হাতে। স্ক্যান রিপোর্টের পর এমনই খবর দিয়েছে বিসিসিআই।

অনুশীলনের সময় বাঁ-হাতের আঙুলে চোট পান মরগান। এক্স-রে করার পর রিপোর্টে জানা যায়, চোট ততটা গুরুতর নয়। অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে প্রস্তুতি ম্যাচের আগে শুক্রবার অনুশীলনের সময় চোট পান তিনি। তবে অজিদের বিপক্ষে খেলতে না পারলেও ৩০মে সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে টুর্নামেন্টের উদ্বোধনী ম্যাচে খেলতে পারবেন ইংলিশ অধিনায়ক।

ইসিবি জানায়, ‘মরগান তার বাঁ-হাতের আঙুলে চোট পেয়েছে। হালকা চিড় রয়েছে আঙুলে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে খেলতে পারবেন না। তবে আশা করা হচ্ছে বিশ্বকাপের ওপেনিং ম্যাচে পুরোপুরি সুস্থ হয়ে নামতে পারবেন তিনি।’

বিজ্ঞাপন

চোট নিয়ে মরগান বলেছেন, ‘দুর্ভাগ্যক্রমে আমি আজকের ম্যাচটি মিস করতে যাচ্ছি। অবশ্য টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচের আগেই আমি খেলার জন্য ফিট হয়ে যাব পুরোপুরি। আমি কিছুটা হতাশ যে আজ খেলতে পারছি না।’

ম্যাচে স্টিভেন স্মিথের সেঞ্চুরিতে ইংলিশদের ২৯৮ রানের টার্গেট দিয়েছে অজিরা।

অন্যদিকে, দ্বিতীয়দিনের নেট সেশনে ব্যাটিং করার সময় ডানহাতে চোট পান বিজয় শংকর। নেট বোলার খলিল আহমেদের ডেলিভারিতে পুল করতে গিয়ে চোট পান তিনি। তড়িঘড়ি করে বিজয়কে মাঠ থেকে তুলে নেন ভারতীয় দলের ফিজিও।

চোটের কারণে শনিবার নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে মাঠে নামতে পারেননি বিজয়। স্ক্যান রিপোর্ট হাতে না পাওয়া পর্যন্ত উৎকণ্ঠায় ছিল টিম ম্যানেজমেন্ট থেকে ভারতীয় সমর্থকরা। তবে স্ক্যান রিপোর্ট হাতে পাওয়ার পর স্বস্তি কোহলির দলে।

স্ক্যান রিপোর্টের কথা উল্লেখ করে বিসিসিআই জানায়, ‘শুক্রবার প্রস্তুতিতে ডানহাতে চোট পেয়েছিলেন শঙ্কর। এরপর তার স্ক্যান করা হয়। কিন্তু স্ক্যান রিপোর্ট গুরুতর নয়। রিপোর্টে কোনও চিড়ের উল্লেখ নেই। বিসিসিআই মেডিকেল টিম তাকে দ্রুত সুস্থ করে তোলার সবরকম চেষ্টা করছে।’

বিজয় না খেলার ম্যাচে চরম ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে ভারত। পরে রবীন্দ্র জাদেজার হাফসেঞ্চুরিতে ভর করে ১৭৯ রান করতে সক্ষম হয় বিশ্বকাপের হট ফেভারিট বিরাট কোহলি বাহিনী।