চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রিয়াল সভাপতিকে বিদায়ের পথ দেখাল গেটাফে

এক মৌসুমের ব্যবধানে হাতের উল্টোপিঠও যেন দেখতে পাচ্ছেন ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ। গত মৌসুমে যখন নিজেদের ১৩তম ও টানা তৃতীয় চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপাটা ঘরে তুলল রিয়াল মাদ্রিদ, সমর্থকরা নেচেছে-গেয়েছে। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো-জিনেদিন জিদানের পাশাপাশি করেছে ক্লাব সভাপতির বন্দনাও। পরের মৌসুমে সেই সমর্থকরাই এখন পেরেজের বিদায় চেয়ে মশগুল তুমুল সমালোচনায়!

বিজ্ঞাপন

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, কোপা ডেল রেতে অনেক আগেই বিদায় নিশ্চিত হয়ে গেছে। লা লিগাতেও কোনো আশা নেই। তবুও খেলতে হবে, পরের মৌসুমে সরাসরি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে জায়গা করে নিতে। আর খেলতে গিয়ে প্রতি পদে অপদস্ত হওয়ার দশা মাদ্রিদের জায়ান্টদের। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনার সঙ্গে এমনিতেই পয়েন্ট ব্যবধানের তুলনা নিয়ে হৈচৈ করে গলা ফাটাচ্ছে লস ব্লাঙ্কোস সমর্থকরা। বৃহস্পতিবার সেই আগুনে যেন তেল ঢেলে দিয়েছে গেটাফে!

চলতি মৌসুমে নিজেদের অন্যরূপে প্রকাশ করেছে গেটাফে। ২০১২ সালের পর স্বপ্ন দেখছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেলারও। ভ্যালেন্সিয়া, সেভিয়ার মতো দলকে টপকে উঠে এসেছে টেবিলের চারেও। সেই গেটাফের মাঠে খেলাটা যে সহজ হবে না, সেটা ধরে নিয়েই একটা পোস্টার সঙ্গে করে মাঠে এসেছিল রিয়াল সমর্থকরা। যাতে লেখা, ‘ফ্লোরেন্তিনো, এবার বিদায় হও!’

বিজ্ঞাপন

যে শঙ্কা নিয়ে মাঠে এসেছিল রিয়াল সমর্থকরা, সেটা আবার ঘটিয়েও ফেলেছে গেটাফে। রিয়ালের মতো কঠিন প্রতিপক্ষকে নিজ মাঠে গোলহীনভাবে রুখে দিয়েছে মাদ্রিদেরই ছোট ক্লাবটি। তাতে প্রমাদ গুনছেন পেরেজ!

ক্লাব সভাপতির বিদায় চেয়ে রিয়াল সমর্থকদের এমন পোস্টার নতুন কিছু নয়। প্রায় একইরকম আরেক পোস্টার নিয়ে ১০ দিন আগে লেগানেসের মাঠে হাজির হয়েছিল একদল সমর্থক। তাতে লেখা ছিল, ‘ফ্লোরেন্তিনো, সবকিছুর জন্য তুমিই দায়ী!’ সেই ম্যাচেও ১-১ গোলে ড্র করেছিল রিয়াল।

মাঠে খেলার জন্য দায় থাকবে খেলোয়াড় কিংবা কোচের। ক্ষেত্র বিশেষে ক্লাব সভাপতিরও! কিন্তু কী এমন কারণ আছে যাতে সমর্থকরা খেপে আছে পেরেজের উপর? বিশেষ করে যিনি পাঁচ মৌসুমে চারবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ উপহার দিয়েছেন সমর্থকদের!

কারণটা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো! গতবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের পর যখন মাদ্রিদ ছাড়ার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন পর্তুগিজ মহাতারকা, সেদিকে বিন্দুমাত্র নজর দেননি পেরেজ। ফলে অনেকটা ক্ষোভ নিয়েই জুভেন্টাসে পাড়ি জমান সিআর সেভেন। রোনালদোবিহীন রিয়ালে যাকে নিয়ে বাজি ধরেছিলেন পেরেজ, সেই বেল মাঠে নামারই সুযোগ পান না। বেশিরভাগ সময় বসে থাকেন সাইডবেঞ্চে। প্রিয় ক্লাবের জন্য ভক্তদের তাতে ক্ষোভ থাকাই স্বাভাবিক!

সমর্থকদের ক্ষোভ প্রশমিত করতে এখন একটাই রাস্তা খোলা পেরেজের সামনে। জিদানের হাতে এমনসব খেলোয়াড় তুলে দেয়া, যারা রোনালদোর অভাবটা দূর করবেন, সঙ্গে শিরোপা দিয়ে ভরিয়ে তুলবেন মাদ্রিদিস্তাদের শিরোপা বাক্স!