চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রানীকে যে উপহার দিলেন ট্রাম্প

তিন দিনের রাষ্ট্রিয় সফরে যুক্তরাজ্য অবস্থান করছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তার এ সফরে সঙ্গী রয়েছেন মার্কিন ফাস্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প। বিশ্বের অন্যতম শক্তিধর দুই রাষ্ট্রের কর্তা ব্যক্তিদের এ মিলন মেলায় দেখা মিলছে নানা সব রাজকীয় আয়োজন। আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমগুলো তা তুলে ধরছে বিশ্ববাসীর সামনে। 

এমনই একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম সিএনএন। তারা তাদের প্রতিবেদনে তুলে ধরেছে উপহারের বিষয়টি। দুই দেশের কর্তা ব্যক্তিরাই তাদের একে অপরকে দেয়া উপহারে বজায় রেখেছেন নিজস্ব কৃষ্টি ও ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতা।

বিজ্ঞাপন

যেমন রানী এলিজাবেথের জন্য বয়ে আনা উপহারের মধ্যে রয়েছে হোয়াইট হাউজের জন্য বিশেষ ভাবে তৈরীকৃত কাঠের গহনার বাক্সের মধ্যে অতি-আকর্ষণীয় রূপালী রঙের পশমী পপি ফুলের ব্রুচ।

ব্রিটিশ রাজা প্রিন্স ফিলিপকে দেয়া উপহারের মধ্যে রয়েছে বিশেষভাবে প্রস্তুতকৃত আমেরিকান এয়ারফোর্সের একটি জ্যাকেট। যেটিতে (জ্যাকেট) যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীর প্রধানের (জেনারেল) সাক্ষর রয়েছে। সঙ্গে নিপুন বুননে খোদাই করা হয়েছে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে সাহসীকতায় প্রশংসা কুড়ানো জেনারেল জেমস ডুলিটলের সেই অমর উক্তি ‘I Could Never Be So Lucky Again-আমি এতোটা ভাগ্যবান কখনও নাও হতে পারি’।

বিজ্ঞাপন

উল্লেখ্য, ব্রিটিশ রাজা প্রিন্স ফিলিপ যুক্তরাজ্যের নৌবাহিনীর সদস্য ছিলেন। মার্শাল অব রয়েল এয়ার ফোর্স সামরিক পদবিও রয়েছে তার। রানী এলিজাবেথকে বিয়ের পর তিনি স্বেচ্ছা অবসর নেন।

ব্রিটিশ রাজা-রানীর জন্য আনা এ উপহার সামগ্রী মার্কিন ফাস্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প নিজ দায়িত্বে তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেছেন বলে জানিয়েছেন মেলানিয়ার মুখপাত্র স্টিফনি গ্রিশাম।

এর আগে, সোমবার তিনদিনের সফরে যুক্তরাজ্যের স্ট্যানস্টেডে পৌঁছালে ট্রাম্পকে রানীর পক্ষ থেকে রাজকীয় স্বাগত জানান রানী এলিজাবেথ এবং রাজা প্রিন্স ফিলিপ।

ব্রিটিশ রাজপরিবারের পক্ষ থেকে এসময় মার্কিন প্রেসিডেন্ট এবং ফাস্ট লেডির হাতে তুলে দেওয়া হয় বিশেষ উপহার। এসময় ট্রাম্পকে উইনস্টন চার্চিলের বই ‘দ্য সেকেন্ড ওয়ার্ল্ড ওয়ার’ ও তিনটি দুলর্ভ কলম উপহার দেন রাণী সঙ্গে মেলানিয়াকে দেয়া হয় মীনার কারুকাজ খচিত রূপোর বাক্স।