চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রাজ্জাকের স্বপ্নিল প্রত্যাবর্তনে বাংলাদেশের স্বস্তি

রাজ্জাক ‘সিটিং অন হ্যাটট্রিক’ -মিরপুরের জায়ান্টস্ক্রিনে ভেসে উঠল লেখাটা। দর্শকদের কণ্ঠে উঠল ‘রাজ্জাক-রাজ্জাক’ রব। নতুন ব্যাটসম্যান রোশেন সিলভার জন্য সময় নিয়ে ফিল্ডিং সাজালেন মাহমুদউল্লাহ। দুই স্লিপ, শর্ট লেগ, সিলি পয়েন্ট, অধিনায়ক নিজে দাঁড়ালেন লেগস্লিপে। হ্যাটট্রিক হয়নি। সেটা না হলেও প্রথম সেশনে রাজ্জাক তিন উইকেট তুলে নিয়ে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে বাংলাদেশকে এনে দিয়েছেন দুর্দান্ত শুরু।

লাঞ্চ বিরতিতে যাওয়া পর্যন্ত টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা শ্রীলঙ্কার সংগ্রহ ৪ উইকেট হারিয়ে ১০৫ রান।

চার বছর পর আন্তর্জাতিক মঞ্চে বল হাতে নিয়ে শুরুতেই বাজিমাত করেন ৩৫ বছর বয়সী রাজ্জাক। ব্রেক-থ্রু আসে তার বাঁ-হাতের ছোবলেই। শুরুতেই স্পিন আক্রমণে যায় বাংলাদেশ। অফস্পিনার মিরাজ ও বাঁহাতি স্পিনার রাজ্জাক বাধেন বোলিংয়ে জুটি।

নিজের তৃতীয় ওভারের প্রথম বলেই করুনারত্নেকে সাজঘরে পাঠান রাজ্জাক। বাঁহাতি ব্যাটসম্যানকে বেরিয়ে আসতে দেখে রাজ্জাক বল দেন লেগস্টাম্পের বাইরে। ব্যাট-প্যাড ফাঁকি দিয়ে বল যায় পেছনে। লিটন দাসের হাতে স্টাম্পড হয়ে সাজঘরে ফেরেন প্রথম টেস্টে শূন্য রানে আউট হওয়া করুনারত্নে (৩)। দলীয় রান তখন ছুঁয়েছে দুইঅঙ্ক (১৪)।

শুরুতে উইকেট হারিয়েও প্রথম ঘণ্টায় লঙ্কানরা ১৬ ওভারে ৬১ রান তোলে কিছুটা আগ্রাসী হয়ে খেলে। মিরপুরের উইকেটে টাইগার স্পিনারদের টার্ন-বাউন্স থেকে বাঁচতে আক্রমণাত্মক মেজাজ দেখায় সফরকারীরা।

মূর্তিকারিগর

পানি পানের বিরতির পর তাইজুলের ছোবল। আগের ম্যাচে ১৯৬ রানের ইনিংস খেলা সিলভাকে ফেরান এ বাঁহাতি স্পিনার। লাফিয়ে ওঠা বলে সিলভা ক্যাচ দেন স্লিপে। হঠাৎ লাফিয়ে ওঠা বলটি গ্লাভস ঘেঁষে যায় সাব্বিরের বিশ্বস্ত হাতে। ৩০ বলে দুটি চার ও একটি ছক্কায় ১৯ রান করে ফেরেন সাজঘরে।

একপ্রান্ত আগলে লড়ে যান মেন্ডিস। তাইজুলকে ছক্কা মেরে পূর্ণ করেন ফিফটি। গুনাথিলাকাকে নিয়ে জুটি বাড়াতে থাকেন।

প্রথম স্পেলে ৫ ওভারে ১৮ রান দিয়ে এক উইকেট নেয়া রাজ্জাক এসেই ভাঙেন জুটি। প্রথম বলেই এগিয়ে এসে ড্রাইভ করতে গিয়ে মিডঅফে মুশফিকের হাতে ধরা পড়েন ১৩ রান করা গুনাথিলাকা। পরের বলে অধিনায়ক চান্দিমাল বোল্ড হন রাজ্জাকের দুদান্ত ঘূর্ণিতে।

FacebookTwitterInstagramPinterestLinkedInGoogle+YoutubeRedditDribbbleBehanceGithubCodePenEmail