চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রাজন হত্যার রায় ৮ নভেম্বর

সিলেটে শিশু শেখ সামিউল আলম রাজন হত্যা মামলার রায় আগামী ৮ নভেম্বর প্রদান করা হবে। আজ সাক্ষ্যগ্রহন শেষে এই তারিখ নির্ধারণ করেছেন আদালত।

বিজ্ঞাপন

এর আগে সিলেট মহানগর দায়রা জজ আদালতে মামলাটির কার্যক্রম শুরুর পর দুইদিন যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করা হয়।মামলায় ৩৬ জন সাক্ষী তাদের সাক্ষ্য প্রদান করেন এবং মামলার ১১ আসামীর আত্মপক্ষ সমর্থন ও যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ হয়। এসময় রাষ্ট্রপক্ষ সকল আসামীর মৃত্যুদণ্ডের আবেদন করেন।

মহানগর দায়রা জজ আদালতের এডভোকেট মফুর আলী, পিপি বলেন,মামলাটি আজকে যুক্তি তর্কের মধ্য দিয়ে সাক্ষ্য জেরার মধ্য দিয়ে প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছি। এটার সর্বোচ্চ দাবী মৃত্যুদণ্ড আমরা আশা করছি।

বিজ্ঞাপন

এদিকে আসামীরা তাদের নির্দোশ দাবি করে খালাসের প্রার্থনা জানায়। আসামী পক্ষের আইনজীবি এডভোকেট হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, আমরা আদালতকে বুঝাতে সক্ষম হয়েছি যে আসামী নিদোর্ষ।

ছেলেকে ঘাতকরা নির্মম নির্যাতন করে হত্যা করেছে । রাজনের মতো আর যাতে কোন শিশু এভাবে না মরে, তাই ছেলে হত্যাকারী ঘাতকদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি করেন রাজনের বাবা আজিজুর রহমান। মামলা দ্রুত শেষ হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী ও গণমাধ্যমকর্মীদের ধন্যবাদ জানান তিনি।

কেউ প্রমাণ করতে পারেনি যে আমার ছেলে চুরি করেছিল। কুমারগাঁওবাসী না থাকলে হয়তো এখনো রাজনকে খুঁজে পেতাম না।

গত ৮ জুলাই কুমারগাঁওয়ে চোর অপবাদ দিয়ে খুঁটিতে বেধে নির্মমভাবে পিটিয়ে খুন করা হয় শিশু রাজনকে।

এরপর নির্যাতনের ভিডিওচিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপলোড করা হলে সারাদেশে ক্ষোভের সঞ্চার হয়।