চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

রাজধানীতে নিজেদের জমিতে বাড়ি করা হলো না তাদের

রাজধানীর উত্তরখানে নিজেদের একটি জমিতে বাড়ি তৈরির উদ্দেশে কিশোরগঞ্জের ভৈরব থেকে ঢাকায় এসেছিলেন মা, ছেলে এবং মেয়ে, এমনটাই জানিয়েছে তাদের প্রতিবেশীরা।

কিন্তু সেই বাড়ি করার আগেই উত্তরখানের ময়নারটেক এলাকার একটি বাসা থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে কিভাবে তাদের মৃত্যু হয়েছে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

বিজ্ঞাপন

ধারণা করা হচ্ছে, শুক্রবার রাতে অথবা শনিবার সকালের মধ্যেই তাদের মৃত্যু হয়েছে। ময়না তদন্ত শেষে লাশ ঢাকা মেডিকেলের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

জানা যায়, চলতি মাসের শুরুতে উত্তরখানের চাপানের টেক এলাকার এই বাসার একটি ইউনিট ভাড়া নেন জাহানারা বেগম ও তার দুই সন্তান মুহিত হাসান ও তাসপিয়া সুলতানা।

‘শনিবার তাদের সঙ্গে টেলিফোনে যোগাযোগ করতে না পেরে ওই বাসায় আসেন এক স্বজন। দরজায় কড়া নেড়েও তাদের কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে চলে যান তিনি। পরদিন আবার বাসায় এসে দুর্গন্ধ টের পেয়ে বাড়ির কেয়ারটেকারকে ডাকেন। পরে জানালায় উঁকি দিয়ে ওই তিনজনের মরদেহ দেখতে পান তারা।’

বিজ্ঞাপন

খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে তিন জনের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে সিআইডির ফরেনসিক টিম বিভিন্ন আলামত সংগ্রহ করে।

ঢাকা মহানগর পুলিশের উত্তরা বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি) নাবিদ কামাল শৈবাল চ্যানেল আই অনলাইনকে বলেন, রোববার রাত ৮টার দিকে স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে পুলিশ উত্তরখানের ময়নারটেক এলাকার ওই বাসায় যায়।

নাবিদ কামাল শৈবাল বলেন, ভেতর থেকে দরজা আটকানো ছিল। দরজা ভেঙে তিনজনের অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করা হয়। কীভাবে তাদের মৃত্যু হয়েছে, তা এখনও স্পষ্ট নয়।

একই পরিবারের তিন জনের মৃত্যুটি পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ড কি না, জানতে চাইলে তিনি বলেন: এখনো এ বিষয়ে কিছু বলা যাচ্ছে না। কারণ তাদের ঘরের ভেতর ছিটকিনি দেয়া অবস্থায় পাওয়া যায়। মনে হচ্ছে তিন-চারদিন আগেই তাদের মৃত্যু হয়েছে।

লাশ ময়নাতদন্তের পর বিস্তারিত বোঝা যাবে বলে জানিয়েছেন তিনি।