চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যৌতুকের জন্য স্বামীর নির্যাতনের শিকার হয়ে রংপুর হাসপাতালে দুই নারী

মেরিনা লাভলী, রংপুর প্রতিনিধি: যৌতুকের জন্য স্বামীর নির্যাতনের শিকার হয়ে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কাতরাচ্ছে দুই নারী। যৌতুক না পেয়ে একজনকে গায়ে আগুন দিয়ে মেরে ফেলার চেষ্টা ও আরেকজনকে পিটিয়ে আহত করেছে বলে অভিযোগ ভুক্তভোগী ওই  নারীর।

পুলিশ কনস্টেবল তাজিরুল ইসলামের সঙ্গে ১৬ বছর আগে রেনু বেগমের বিয়ে হয়। তার অভিযোগ, বিয়ের পর থেকে তার ওপর যৌতুকের জন্য নির্যাতন চালায় তাজিরুল।

রেনুর পৈত্রিক সূত্রে পাওয়া জমি লিখে দিতে ২৭ মে চাপ প্রয়োগ করে তাজিরুল। এতে রেনু রাজি না হলে ক্ষিপ্ত হয়ে রেনুর গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। এলাকাবাসী রেনুকে উদ্ধার প্রথমে তারাগঞ্জ স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

অন্যদিকে সদর উপজেলার হরিদেবপুর পানবাজার মধ্যপাড়ায় যৌতুকের জন্য স্বামী বাদশা মিয়ার নির্যাতনের শিকার আরেক নারী আনজু আরা। নির্যাতনে আহত হয়ে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

মানবাধিকার কর্মীরা বলছেন, উত্তরাঞ্চলে যৌতুকের জন্য নারী নির্যাতন আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে। প্রতিরোধে কার্যকর ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছেন তারা।

বিস্তারিত দেখুন ভিডিও রিপোর্টে: