চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যোগাযোগ অবকাঠামোয় ২৯ হাজার ২৭৪ কোটি টাকা

আগামী অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ খাতে ২৯ হাজার ২৭৪ কোটি ৮ লাখ টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। যা গত অর্থ বছরের চেয়ে৭ হাজার কোটি টাকা বেশী।

বিজ্ঞাপন

আজ বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে ২০১৯-২০ অর্থবছরের উত্থাপিত বাজেটে তিনি এই প্রস্তাব করেন।

সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ খাতে এবার পরিচালন ব্যয় ধরা হয়েছে ৪ হাজার ১১০ কোটি টাকা এবং উন্নয়ন ব্যয় ধারা হয়েছে ২৫ হাজার ১৬৩ কোটি ৩৬ লাখ টাকা। চলতি অর্থবছরে (২০১৮-১৯) এ খাতে সংশোধিত বাজেটে বরাদ্দ ছিল ২৩ হাজার হাজার ৪৮৬ কোটি ২৯ লাখ ৯০ হাজার টাকা।

বাজেট বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী বলেন, ২০৪১ সালের মধ্যে দেশকে উন্নত দেশে রূপান্তরের লক্ষ্যে সড়ক উন্নয়ন ও সংস্কার, নতুন সড়ক নির্মাণ, উড়াল সেতু/ওভারপাস নির্মাণ, সেতু/কাভার্ট নির্মাণ ইত্যাদি জনগুরুত্বপূর্ণ পরিকল্পনা বাস্তবায়নের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। সড়ক পরিবহন ব্যবস্থার আধুনিকায়নের লক্ষ্যে পর্যায়ক্রমে সকল জাতীয় মহাসড়ক ৪ লেন বা তদুর্ধ্ব লেনে উন্নীতকরণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, এর ধারাবাহিকতায় ৫০৯ কিলোমিটার জাতীয় সড়ক চার বা তদূর্ধ্ব লেনে উন্নীত হয়েছে। আরো ৫০৭ কিলোমিটার মহাসড়ক চার বা তদূর্ধ্ব লেনে উন্নীতকরণের কাজ চলমান রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

অর্থমন্ত্রী বলেন, সরু ও ক্ষতিগ্রস্ত সেতু ও কালভার্ট পুনঃনির্মাণ করা হচ্ছে। জোনভিত্তিক জেলা মহাসড়ক সংস্কার, উন্নয়ন ও মেরামত কাজ চলমান রয়েছে।

তিনি বলেন, বিশ্বায়নের সুফল অর্জন এবং বাজার অর্থনীতির প্রেক্ষাপটে আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক পরিবহন নেটওয়ার্কের সাথে যুক্ত হওয়ার লক্ষ্যে সাসেক রোড কানেকটিভিটি প্রজেক্ট-১ ও ২ বাস্তবায়িত হচ্ছে। এছাড়া সাড়াদেশের ঝুঁকিপূর্ণ বেইলি ব্রিজসমূহের স্থলে কংক্রিট সেতু নির্মাণ করা হবে।

আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, দেশের সমন্বিত ও নিরবচ্ছিন্ন যোগাযোগ নেটওয়ার্ক স্থাপনে সরকার পদ্মা বহুমুখি সেতু, কর্ণফুলি নদীর তলদেশে টানেল এবং হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে কুতুবখালি পর্যন্ত ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণসহ আরো অনেক বৃহৎ প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে।

তিনি বলেন, নিজস্ব অর্থায়নে নির্মাণাধীন পদ্মা সেতুর এখন ২ কিলোমিটার দৃশ্যমান। প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি ৬৭ শতাংশ। দ্বিতীয় মেঘনা, গোমতি ও কাঁচপুর সেতু নির্ধারিত সময়ের আগেই নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে। এই সেতুগুলো প্রধানমন্ত্রী ইতোমধ্যে উদ্বোধন করেছেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ঢাকা মহানগরীর অভ্যন্তরীন যোগাযোগ নেটওয়ার্ক আধুনিকায়নের লক্ষ্যে সরকার ‘রিভাইজড স্ট্রেটেজিক ট্রান্সপোর্ট প্লান’ বাস্তবায়ন করছে। এর আওতায় বাংলাদেশে প্রথম মেট্রারেল উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত এমআরটি লাইন -৬ নির্মাণের কাজ পুরোদমে এগিয়ে চলছে।

‘সমৃদ্ধ আগামীর পথযাত্রায় বাংলাদেশ: সময় এখন আমাদের, সময় এখন বাংলাদেশের’ শিরোনামে ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য ‘স্মার্ট’ বাজেট পেশ শুরু করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। নতুন অর্থবছরে বাজেটের প্রস্তাবিত আকার ধরা হয়েছে ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকা।