চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

যা বললেন বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী

প্রধান বিচারপতি রাজনৈতিক উদ্দেশ্য নিয়ে কাজ করছেন দাবি করে তার পদত্যাগ চেয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি এ এইচ এম শামসুদ্দিন চৌধুরী।

বিজ্ঞাপন

সোমবার বিকেলে অবসরে যাওয়ার পর লেখা রায় ও আদেশ আপিল বিভাগে জমা দেয়ার আগে সাংবাদিকদের কাছে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

বিচারপতি শামসুদ্দিন বলেন, বিচারপতি ইমান আলী সাহেবের সঙ্গে দেখা করেছি, কারণ আমার ফাইলগুলো নিয়ম অনুযায়ী প্রথমে তার কাছেই যাবে। তার সঙ্গে আলাপ হয়েছে তিনি এটা গ্রহণ করতে যাচ্ছেন।

‘নিয়মটা হলো উনি প্রথমে দেখবেন, পড়বেন। পড়ার পরে পরিবর্তন করতে চাইলে করবেন, আর যদি উনি সন্তুষ্ট হন যে সব ঠিক আছে তাহলে উনি সই করে আদেশ এবং রায়গুলো পাঠিয়ে দিবেন তার যে সিনিয়র অর্থাৎ আমাদের বেঞ্চের যিনি প্রিজাইডিং জার্জ ছিলেন মাননীয় বিচারপতি আব্দুল ওয়াহহাব মিঞা কাছে।’

বিজ্ঞাপন

বেলা সাড়ে ৩টার দিকে আপিল বিভাগের বিচারপতি মোহাম্মদ ইমান আলীর কাছে তিনি ফাইলগুলো জমা দেয়ার পর সুপ্রিম কোর্টের মাজারগেটে সাংবাদিকদের বলেন, ‘প্রধান বিচারপতি বিএনপির এজেন্ডা বাস্তবায়নে কাজ করছেন।’

তিনি বলেন, ‘অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতিরা রায় লিখতে পারবে না, এটা বহু আগে খালেদা জিয়া বলেছিলেন, প্রধান বিচারপতি খালেদা জিয়ার মুখপাত্র হয়েই বিএনপির এজেন্ডা চরিত্রার্থ করার জন্যেই এটা করেছেন।’

প্রধান বিচারপতি এর আগে আরো বলেছেন, ‘সরকার নাকি বিচার বিভাগের স্বাধীনতা কেড়ে নিচ্ছেন।এগুলো সব মিথ্যাচার করে বেড়াচ্ছেন উনি মানুষের কাছে এই সরকারের জনপ্রিয়তা নষ্ট করার জন্য। মানুষের কাছে এই সরকারের বিভ্রান্তি সৃষ্টি করার জন্য। আমি মনে করি তার পদত্যাগ করা উচিত।’

এসময় অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতিরা রায় লিখতে পারবেন না সাম্প্রতি প্রধান বিচারপতির এমন বক্তব্যের সমালোচনা করেন সাবেক এ বিচারপতি।

তিনি বলেন, ‘আমার রায় আমি দিচ্ছি, নথি আমি কেনো ফেরত দিবো। তার অবৈধ আদেশ আমি মানব না। এটা মহান সংসদও প্রত্যাখান করেছে যে অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতিরা রায় লিখতে পারবে না।’