চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মোদির ‘কন্যার সাথে সেলফি’ আহবানে ব্যাপক সাড়া

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর #SelfieWithDaughter বা “কন্যার সাথে সেলফি” আহবানে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম টুইটার এবং ফেসবুকে ব্যাপক সাড়া পড়েছে। ২৮ জুন মোদীর ‘মান কি বাত’ প্রোগ্রামে এ আহবান জানানোর পরপরই বহু বাবা তাদের মেয়ের সাথে সেলফি শেয়ার করেন।

বিজ্ঞাপন

সেলফিসহ পোস্টে বাবাদের জীবনে তাদের মেয়েরা কতটা অংশ জুড়ে রয়েছে; এমন অনুভূতি প্রকাশ করেছেন অনেকেই।

তাদের কেউ কেউ বলেন, মেয়ে সন্তান আমার পৃথিবী।

আবার অনেকেই মেয়ে সন্তানের সাথে জড়িত অনেক অতীত অভিজ্ঞতাও শেয়ার করেন। যেমন; মেয়েদের প্রথম স্কুলের অভিজ্ঞতা, পরিবারের সাথে ছুটি কাটানো ইত্যাদি।

মেয়রা তাদের কাছে আনন্দের সমাহার বলেও অনেকে জানান।

হরিয়ানার এক পঞ্চায়েত আলোচনার সময়ই এই ধারনাটি প্রথম তার দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলে জানান মোদি। আরও অনেক বেশি মেয়েদের শিক্ষার আওতায় আনার জন্য এবং লিঙ্গসমতার  জন্য সরকারের ‘বেটি বাঁচাও, বেটি পড়াও’ কাযর্ক্রমে এই চিন্তা অনেক বড় প্রভাব রাখবে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।

বিজ্ঞাপন

বাবার সাথে সাবেক আইপিএস অফিসার কিরন বেদি

মোদির এই আহবানে সাড়া দিয়েছেন ভারতের রাজনীতি, চলচ্চিত্রসহ বহুক্ষেত্রের রথী-মহারথীরা।

মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্রা ফারনাভিস, ইউনিয়ন মন্ত্রী নিমর্লা সিথরামান, এমপি প্রতাপ সিং, গুজরাটের মন্ত্রী শংকরভাই চৌধুরী, সাবেক আইপিএস অফিসার কিরন বেদি, চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্য শেখর কাপুর, যুক্তরাষ্ট্রের সহকারি স্বরাষ্ট্রসচিব নিশা দেশাই, সাংবাদিক কাঞ্চন গুপ্তাসহ আরও অনেকে তাদের মেয়ে সন্তানের সাথে একটি মুর্হুত শেয়ার করেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের সহকারি স্বরাষ্ট্র সচিব নিশা দেশাই।

 মোদির আহবানের একঘণ্টার মধ্যেই সামাজিক মাধ্যমে তা ব্যাপক আলোড়নের সৃষ্টি করে। ফেসবুকে এবং টুইটারে জনপ্রিয়তার দিক থেকে ভারতের শীর্ষ এবং বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয়তার দিকে ৫ নম্বর অবস্থানে চলে আসে।

এই বিষয়ে এখন পযর্ন্ত এক লাখেরও বেশি টুইট করা হয়েছে। আফ্রিকা এবং ইউরোপের অধিবাসিরাও এই আহবানে সাড়া দিয়ে সেলফি প্রকাশ করেছে।

প্রধানমন্ত্রীর ‘মান কি বাত’ প্রোগাম থেকে এর আগেও এমন সাড়া জাগিয়েছিলো।

গত মাসের #IncredibleIndia আহবানেও লাখ লাখ মানুষ তাদের মুর্হুত প্রকাশ করে। তার #DrugsFreeIndia আহবানও আলোড়ন সৃষ্টি করেছিলো।