চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মিয়ানমারের সীমান্তবর্তী সাগর থেকে আরো ৫ বাংলাদেশী উদ্ধার

অবৈধভাবে মালয়েশিয়ায় যাওয়ার পথে শতাধিক বাংলাদেশী এখনো ভাসছে মিয়ানমারের নিকটবর্তী সাগরে। এর মধ্যে কৌশলে ফেরত আসা আরো ৫ জনকে মঙ্গলবার উদ্ধার করেছে বিজিবি।

বিজ্ঞাপন

এর আগে সোমবার কোষ্টগার্ড ও বিজিবি হাতে আরো ১৩ বাংলাদেশীকে উদ্ধার করা হয়।

বিজ্ঞাপন

বিজিবি’র টেকনাফস্থ ৪২ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্ণেল আবুজার আল জাহিদ জানিয়েছেন, মঙ্গলবার ভোরে টেকনাফের শাহপরীরদ্বীপ জেটিঘাট এলাকা থেকে ৫ বাংলাদেশীকে উদ্ধার করা হয়।

উদ্ধার হওয়া বাংলাদেশীরা হলেন, সিরাজগঞ্জ জেলার বেলকুচি উপজেলার কল্যানপুর এলাকার রেজাউল করিমের ছেলে রবিউল ইসলাম (১৮), একই এলাকার সাইদুল ইসলামের ছেলে ইসমাইল হোসেন (১৫), ঝিনাইদাহ জেলার হাটবাকুয়া উপজেলার মগরখালী এলাকার মুশফিকুর বিশ্বাসের ছেলে মো.মঞ্জুর বিশ্বাস (১৭), একই এলাকার শরিফুল সরদারের ছেলে রুবেল সরদার (২৪), জয়হাটপুর জেলার ক্ষেতলাল উপজেলার বানাইচাট এলাকার আলীম উদ্দিনের ছেলে নুরুল ইসলাম (৩৮)।

বিজিবি কর্মকর্তা জানান, গত কিছুদিন যাবত বাংলাদেশী নাগরিকগণ অবৈধভাবে মালয়েশিয়া যাওয়ার সময় মিয়ানমার অভ্যন্তরে সাগরে নৌযোগে ভাসমান অবস্থায় আছে বলে তাদের কাছে তথ্য রয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে গত ১৮ মে বাংলাদেশী গরু ব্যবসায়ীরা ৬ জন বাংলাদেশী দেখতে পেয়ে নৌকা যোগে তাদেরকে বিজিবি’র কাছে হস্তান্তর করে। একই ভাবে মঙ্গলবার ভোরেও আসে আরো ৫ জন।

এরা প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে বিজিবিকে জানিয়েছে, গত ২ মাস পূর্বে কক্সবাজার মহেশখালী এলাকা থেকে সাগরপথে মালয়েশিয়া পাচারের উদ্দেশ্যে দালাল চক্রের সদস্যরা তাদেরকে ফিশিং নৌকা করে সাগরে নিয়ে যায়। উদ্ধার হওয়া বাংলাদেশীদের টেকনাফ থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। এর আগে সোমবার বিজিবির ৬ জন ছাড়াও কোষ্টগার্ড উদ্ধার করে আরো ৭ জন।