চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

সুখে থাকতে বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত

দুজনেই খুব অসুখী ছিলেন। সেজন্যই বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত। কারিনা কাপুর খানের রেডিও শো ‘হোয়াট ওম্যান ওয়ান্ট’-এ আরবাজ খানের সঙ্গে বিচ্ছেদের কারণ জানালেন মালাইকা।

বিজ্ঞাপন

মালাইকা বলেন, ‘আমার কাছে সুখটাই সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ। তার জন্য যদি জীবনে বড় কোনো সিদ্ধান্ত নিতে হয়, তবুও নিতে আপত্তি নেই। আমরা দুজন মিলেই অনেক বিষয় নিয়ে ভেবেছি এবং সেগুলোর ইতিবাচক এবং নেতিবাচক দিকগুলো চিন্তা করেছি। এরপর সিদ্ধান্ত নিয়েছি আলাদা ভাবে ভালো থাকার। কারণ আমরা একসঙ্গে খুবই অসুখী ছিলাম যার প্রভাব আমাদের আশেপাশের মানুষগুলোর উপরে পড়ছিলো।’ মালাইকা জানান, ডিভোর্সের আগের রাতেও তার পরিবার তাকে জিজ্ঞেস করেছিলো যে ডিভোর্সের সিদ্ধান্তে তিনি শতভাগ নিশ্চিত কিনা।

কারিনা কাপুর মালাইকাকে জিজ্ঞেস করেন বাবা-মায়ের ডিভোর্সের পরে ছেলে আরহান এর প্রতিক্রিয়া সম্পর্কে। মালাইকা বলেছেন, ‘অস্বস্তিকর পরিবেশে বেড়ে ওঠার চাইতে একটি সুখী পরিবেশে সন্তান বড় হওয়া বেশী গুরুত্বপূর্ণ। সময়ের সাথে সাথে ও বিষয়টি বুঝবে এবং গ্রহণ করে নিবে। ও দেখছে যে আমরা আলাদাই বেশী ভালো আছি। একদিন ও আমাকে বলবে, মা তোমাকে হাসিখুশি দেখতেই ভালো লাগছে।’

১৮ বছর সংসার করার পর আরবাজ খান ও মালাইকা ২০১৭ সালে আলাদা হয়ে যান। তাদের ছেলে আরহানের বয়স ১৬ বছর। বিবাহবিচ্ছেদের পরেও বন্ধুত্ব বজায় রেখেছেন আরবাজ-মালাইকা। যে কোনো অনুষ্ঠানে তাদেরকে এখনও একসঙ্গেই দেখা যায়। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।