চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

মানবতাবিরোধী অপরাধ: ফেনীর তিন রাজাকারের বিরুদ্ধে তদন্ত সম্পন্ন

ফেনীর তিন রাজাকারের বিরুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলার তদন্ত সম্পন্ন করেছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের তদন্ত সংস্থা।

বিজ্ঞাপন

তিন আসামি হলেন, ফেনী সদরের মজলিশপুর গ্রামের তোফাজ্জল হোসেন ওরফে তজু (৬৭), বরইয়া গ্রামের মো. আবু ইউসুফ (৭১) ও উত্তর গোবিন্দপুরের নুর মোহাম্মদ ওরফে নুর আহমদ (৭৩)। এদের তিন জনের মধ্যে তোফাজ্জল ও ইউসুফ পলাতক। আর নুর মোহাম্মদকে নীলফামারী সদরের ছিট ইটখলা থেকে গত ২০ মে গ্রেপ্তার করা হয়। বৃহস্পতিবার তদন্ত সংস্থার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে এ তদন্ত প্রতিবেদনের সারসংক্ষেপ তুলে ধরা হয়।

বিজ্ঞাপন

সংবাদ সম্মেলনে সংস্থার প্রধান সমন্বয়ক আব্দুল হান্নান খান বলেন: একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধে আটক, অপহরণ, নির্যাতন, হত্যা, অগ্নিসংযোগ ও লুণ্ঠনের মত মানবতাবিরোধী অপরাধের প্রমাণ উঠে এসেছে তদন্তে। ১৯৭১ সালের ২৯ এপ্রিল থেকে ১০ আগস্ট সময়ের মধ্যে আসামিরা এসব অপরাধ করে।

এ তিন আসামির রাজনৈতিক পরিচয় তুলে ধরে তিনি আরও বলেন: আসামি তোফাজ্জল হোসেন ১৯৭১ সালের আগে থেকই জামায়াতের অঙ্গ সংগঠন ছাত্রসংঘের রাজনীতি করতেন। মুক্তিযুদ্ধ শুরু হলে তিনি ফেনী সদরের রাজাকার বাহিনীতে যোগ দেন। বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত পলাতক এই আসামি বেসরকারি এনসিসি ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান ও পরিচালক ছিলেন।

অন্য আসামি আবু ইউসুফ ও নুর মোহাম্মদ ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় জামায়াতে ইসলামীর কর্মী হিসেবে ফেনী সদর রাজাকার বাহিনীতে যোগ দিয়েছিলেন। তারা এখনও জামায়াতের রাজনীতির সাথেই আছেন।

এর আগে ২০১৭ সালের ২৬ জানুয়ারি এ মামলাটির তদন্ত শুরু হয়। তদন্ত করেছেন তদন্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আমিনুর রশিদ। তদন্তে উঠে আসা অপরাধের ভিত্তিতে আসামিদের বিরুদ্ধে দুটি অভিযোগ আনা হয়েছে তদন্ত প্রতিবেদনে। এ তদন্তের সময় ২১ জনের জবানবন্দি গ্রহণ করা হয়েছে। শিগগিরই এ তদন্ত প্রতিবেদনটি ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউশনে জমা দেয়া হবে জানান আব্দুল হান্নান খান। এসময় সংবাদ সম্মেলনে তদন্ত সংস্থার জ্যেষ্ঠ সমন্বয়ক সানাউল হক ছাড়াও অন্যান্য তদন্তকারী কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।