চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ব্রিটেনে নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরু

ব্রেক্সিট ইস্যুতে ব্যর্থতার দায় নিয়ে ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টির প্রধানের পদ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে সরে দাঁড়ালেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। তবে তার উত্তরসূরী নির্বাচিত হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি প্রধানমন্ত্রী থাকছেন। নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে মাঠে নেমেছেন কনজারভেটিভ পার্টির ১১জন এমপি। 

বিজ্ঞাপন

শুক্রবার সকালে এক বিবৃতিতে দলীয় প্রধানের পদ থেকে পদত্যাগ করেন থেরেসা মে।

বিজ্ঞাপন

পদত্যাগের বিষয়টি নিশ্চিত করে বিবিসি জানায়, নতুন দলীয় প্রধান নির্বাচিত না হওয়া পর্যন্ত থেরেসা মে’ই অন্তর্বর্তীকালীন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। একই সঙ্গে দায়িত্ব পালন করবেন অন্তর্বর্তীকালীন দলীয় প্রধান হিসেবেও।

এদিকে কনজারভেটিভ পার্টির ১১ জন নেতা দলীয় প্রধান ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে লড়াই করছেন। আগামী ১০ জুন ব্রিটিশ সময় সকাল ১০টা থেকে মনোনয়নপত্র দেয়া শুরু হবে। ওইদিনই বিকেল ৫টা পর্যন্ত মনোনয়নপত্র দেয়া শেষ হবে। এরপর ১৩ থেকে ২০ জুন কয়েকটি ধাপে নির্বাচন প্রক্রিয়া শেষ হওয়ার পর আগামী ২২ জুলাই কনজারভেটিভ পার্টির নতুন প্রধানের নাম ঘোষণা করা হবে।

গোপন ব্যালটের মাধ্যমে ক্ষমতাসীন দলের এমপিরা ১৩, ১৮, ১৯ এবং ২০ জুন প্রার্থীদের ভোট দেবেন। প্রতিদ্বন্দ্বিতায় টিকে থাকতে হলে প্রত্যেক প্রধানমন্ত্রী প্রার্থীকে কমপক্ষে ৮জন এমপির সমর্থন পেতে হবে। ৮ প্রার্থীর মধ্যে দলীয় নেতৃত্বের জন্য চূড়ান্তভাবে ২ জনকে নির্বাচন করা হবে।

এর আগে গত ২৪ মে প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন থেরেসা মে। ওই সময় কান্নারত অবস্থায় নিজের পদত্যাগের ঘোষণা দিয়ে তিনি বলেন, ব্রেক্সিট বাস্তবায়ন করে যেতে না পারার কারণে তিনি গভীরভাবে অনুতপ্ত।