চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ব্রিটিশ পাউন্ডে আবারও বড় ধস

ব্রিটিশ জনগণ ব্রেক্সিটের পক্ষে রায় দেয়ার পর গত ৩১ বছরের মধ্যে সবচেয়ে খারাপ অবস্থায় পড়েছে ব্রিটেনের মুদ্রা ‘পাউন্ড স্টালিং’।

প্রতি মার্কিন ডলারের বিপরীতে মঙ্গলবার পাউন্ডের বিনিময় মূল্য ১ দশমিক ২৭৭৮ ডলারে নেমে যায়। সেখান থেকে বুধবার আরো এক দফা কমেছে। এদিন ০ দশমিক ৩ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ১ দশমিক ২৬৯৫ ডলারে।

বিজ্ঞাপন

আর ইউরোর বিপরীতে পাউন্ডের দাম গত পাঁচ বছরের মধ্যে সর্বনিম্নে ঠেকেছে। গতকাল ইউরোর বিপরীতে পাউন্ডের বিনিময় মূল্য কমেছিল দশমিক ৯ শতাংশ। আজ সেটা আরো কমেছে।

গত রোববার দেশটির প্রধানমন্ত্রী তেরেসা মে এক বিবৃতিতে জানান, তার সরকার আগামী বছরের মার্চে ইইউ থেকে ব্রিটেনের বের হয়ে যাওয়ার কাজ শুরুর পরিকল্পনা নিয়েছে। এরপরই পাউন্ডের বড় ধরণের  পতন ঘটলো।

বিজ্ঞাপন

পাউন্ডের বিনিময় হারে প্রথম ধাক্কা লাগে গত জুনে। ব্রিটেনের গণভোটে  ব্রেক্সিটের পক্ষে রায় আসার পর সে সময়ে পাউন্ডের ব্যাপক দরপতন হয়েছিল। এর আগে ১৮৯৫ সালে ১ পাউন্ডের বিপরীতে ডলারের মূল্য দাঁড়িয়েছিল ১ দশমিক ২৭৯৬ ডলার।

পাউন্ডে অব্যাহত ধসের কারণে ব্যবসা-বাণিজ্য নিয়ে আশঙ্কায় রয়েছেন ব্রিটেনের ব্যবসায়ীরা।

ব্রিটিশ ফিন্যান্সসিয়াল সার্ভিস সেক্টরকে দেশটির ট্রেজারি সিলেক্ট কমিটির চেয়ারম্যান অ্যান্দ্রু ট্রাইয়ু জানিয়েছেন, প্রায় সাড়ে পাঁচ হাজার ব্রিটিশ ফার্ম ইইউভুক্ত অন্য কোনো দেশে ব্যবসা করার চিন্তা করছে।