চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার রোমাঞ্চকর জয়

এক পর্যায়ে কঠিন হয়ে যাওয়া ম্যাচ প্রায় সহজ করে ফেলেছিলেন দিনেশ কার্তিক এবং রিশভ পান্ট। ১৮ বলে দরকার ছিল ৩৫। এরপর ১২ বলে ২৪। সেখান থেকে শেষ পর্যন্ত চার রানের হার।

বিজ্ঞাপন

তিন ম্যাচ টি-টুয়েন্টি সিরিজের প্রথমটিতে ব্রিসবেনে টস জিতে ভারত আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয়। বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে অজিরা ১৭ ওভার ব্যাট করতে পারে। ১৬.১ ওভারে বৃষ্টি নামলে খেলা বেশ কিছু সময় বন্ধ থাকে। পরে বাকি পাঁচ বল খেলিয়ে ইনিংস শেষ করা হয়। ওই সময় অস্ট্রেলিয়ার রান ছিল ১৫৮। বৃষ্টি আইনে রানরেট হিসাব করে ১৭ ওভারে ভারতের টার্গেট দাঁড়ায় ১৭৪। দলটি সাত উইকেটে ১৬৯ পর্যন্ত যেতে পারে।

অস্ট্রেলিয়া পঞ্চম ওভারে দলীয় ২৪ রানের মাথায় প্রথম উইকেট হারায়। ৭৫ রান তুলতে ফিরে যান আরও দুইজন। এরপর দাঁড়িয়ে যান স্টয়নিস এবং ম্যাক্সওয়েল। দুজনে ৭৮ রানের জুটি গড়ে রানরেট বাড়িয়ে নেন।

স্টয়নিস ১৯ বলে তিন চার এক ছয়ে ৩৩ রানে অপরাজিত থাকেন। বুমরাহর বলে আউট হওয়ার আগে ম্যাক্সওয়েল করেন ২৪ বলে ৪৬। কোনো বাউন্ডারি নেই, ওভার-বাউন্ডারি চারটি।

বিজ্ঞাপন

কুলদ্বীপ নেন দুই উইকেট। একটি করে উইকেট বুমরাহ এবং খালিদ আহমেদের।

ভারত জবাব দিতে নেমে ৩৫ রানের মাথায় রোহিত শর্মাকে (৭) হারায়। লোকেশ রাহুলকে নিয়ে ধাওয়ান দারুণ ব্যাট করতে থাকেন। ব্যক্তিগত ১৩ রানে রাহুল ফিরে গেলেও ধাওয়ান দলকে ১০৫ রানে রেখে যান। ৪২ বলে ১০টি চার দুটি ছয়ে ৭৬ রানের অবদান তার। চার নম্বরে নামা কোহলি আট বলে চার করতে পারেন।

বিপদের সময় পান্টকে নিয়ে কার্তিক ৫১ রানের জুটি গড়েন। এই জুটি ভাঙতেই ভারতের জন্য ম্যাচ বের করা কঠিন হয়ে যায়।

শেষ ওভারে তাদের জয়ের জন্য দরকার ছিল ১৩ রান। উইকেটে কার্তিকের সঙ্গে ক্রুনাল পান্ডিয়া। ওভারের তৃতীয় এবং চতুর্থ বলে দুজনকে ফিরিয়ে ম্যাচ থেকে ভারতীয়দের ছিটকে দেন স্টয়নিস।

চার ওভারে ২২ রান দিয়ে দুই উইকেট নেয়া জাম্পা ম্যাচসেরা হয়েছেন। দুই উইকেট পেয়েছেন স্টয়নিসও।