চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বিয়ের আড়াই মাস পর ফের সিয়ামের গায়ে হলুদ

দীর্ঘদিনের প্রেমিকা শাম্মা রুশাফি অবন্তীর সঙ্গে চিত্রনায়ক সিয়াম আহমেদের বিয়ে হয়েছিল গত ১৬ ডিসেম্বর। তখন তাদের দুই পরিবারের সদস্যরা ছাড়া তেমন কেউ উপস্থিত ছিলেন না। বিয়ের প্রায় আড়াই মাস মঙ্গলবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় রাজধানীর তোপখানা রোডের একটি কমিউনিটি সেন্টারে ধুমধাম আয়োজনে অনুষ্ঠিত হলো সিয়াম-অবন্তীর গায়ে হলুদ।

বিজ্ঞাপন

সিয়াম-অবন্তী ও তাদের দুই পরিবারের সদস্যরা ছাড়াও এই গায়ে হলুদে উপস্থিত ছিলেন শোবিজ অঙ্গনের অনেকেই। ছোট ও বড় পর্দার অনেক তারকাই গিয়েছিলেন সিয়ামের হলুদ সন্ধ্যায়। এদিন সন্ধ্যা ৭ টার পর শুরু হয় গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান। একে একে হাজির হন তারকারা। রাত যতো বাড়তে থাকে সিয়ামের গায়ে হলুদ হয়ে ওঠে তারায় তারায় আলোকিত! রাত ১১ টা পর্যন্ত চলে এই হলুদ অনুষ্ঠান।

সিয়ামের গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানের বিশেষ আকর্ষণ ছিল গানবাজনা! সিয়াম পরেছিলেন কারুকার্য করা লাল শেরওয়ানি এবং অবন্তী নিজেকে সাজিয়েছিলেন হলুদ পোশাকে। সিয়াম-অবন্তী দুজনই অতিথিদের সাথে নেচে গেয়ে মাতিয়ে রাখেন

প্রেমের বাক্স, ওরে শ্যাম, বিয়াইনসাবসহ বাংলা ও হিন্দি বিভিন্ন জনপ্রিয় ও পার্টি গানে নাচেন সিয়াম-অবন্তী ও তার বন্ধুরা।

মার্চের প্রথম দিন সিয়ামের বিয়ের সংবর্ধনা। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনে সিয়াম তার বিয়ের সংবর্ধনার আয়োজন করেছেন। সেখানে দেশের গণ্যমান্য ব্যক্তিদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বলে জানান সিয়াম।

বন্ধুর বোন শাম্মা রুশাফি অবন্তীর সঙ্গে নয় বছরের পরিচয় চিত্রনায়ক সিয়ামের। আর সাত বছর তাদের প্রেমের সম্পর্ক। সেই সম্পর্কের সূত্র ধরে তারা ১৬ ডিসেম্বর বিয়ে করেন পারিবারিকভাবে।বিয়ের পর সিয়াম বলেছিলেন, জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত আমরা একসঙ্গে থাকব, এমন ভাবনা থেকে আমাদের সম্পর্কের শুরু। আমি সব সময় যে বিষয়টা দেখেছি, অবন্তী আমার প্রতি যতটা শ্রদ্ধাশীল তার চেয়েও বেশি আমার পেশার প্রতি। আমি যা করছি, সবকিছুতে সে সাপোর্ট করেছে। অবন্তী যে সাপোর্ট আমাকে করে আসছে, এভাবে থাকলে পেশাগত ও ব্যক্তিজীবন দুই জায়গায় হয়েতো ভালো কিছু করতে পারব। একজন পুরুষের সফলতার পেছনে তার জীবনসঙ্গীর সমর্থন বড় ভূমিকা রাখে। তেমনি নারীর ক্ষেত্রেও জীবনসঙ্গীর সমর্থন খুব জরুরি। এমন একজন মানুষকে জীবনসঙ্গী হিসেবে ভীষণ খুশি।’