চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বিশ লাখ শ্রমিকের স্বার্থে সুযোগ চায় বিড়ি শিল্প উদ্যোক্তারা

প্রস্তাবিত বাজেটে বিড়ি শিল্পের উপর আরোপিত শুল্কের ১১০ শতাংশ বৃদ্ধিকে বিশ লাখ শ্রমিকের সাথে ‘অবিচার’ বলে অভিযোগ করেছেন বিড়ি শিল্প উদ্যোক্তারা।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার জাতীয় প্রেসক্লাব এক সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ বিড়ি শিল্প মালিক সমিতির নেতারা বাজেটে বিড়ির উপর আরোপিত অতিরিক্ত শুল্ক প্রত্যাহারের দাবি জানান।

শুরুতে বিড়ি ও সিগারেটের তুলনামূলক স্বাস্থ্য ঝুঁকির উপর আলোচনা করেন জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক মোহাম্মদ আব্দুস সবুর। তিনি বলেন, সিগারেটের তুলনায় বিড়িতে নিকোটিনের পরিমাণ কম থাকে। ফলে এখানে স্বাস্থ্য ঝুঁকি কম থাকে।

বিজ্ঞাপন

বিড়ি মালিক সমিতির সাধারন সম্পাদক শেখ মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বলেন, অর্থমন্ত্রীর প্রস্তাবনা এই শিল্পের সাথে জড়িত ২০ লক্ষ মেহনতি মানুষের আর্থ সামাজিক জীবনকে ঝুঁকিপূর্ণ করে তুলবে। বিড়ি শিল্পের শ্রমিকদের ৯০ শতাংশ নারী। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মেহেনতী মানুষদের পাশে সব সময় থাকেন। এবারেও বিড়ি শ্রমিকদের পাশে থাকবেন বলে আশা করছি।

বাজেটে প্রতি হাজার বিড়ির ট্যারিফ মুল্যে ১০০ শতাংশ শুল্ক বাড়ানো হয়েছে সেখানে বিদেশী কোম্পানির সিগারেটে মাত্র ১ শতাংশ রাজস্ব বৃদ্ধির প্রস্তাবের বিষয়টি উল্লেখ করেন বিড়ি শিল্প উদ্যোক্তারা।

বর্তমানে দেশের ৯৮টি বিড়ি ফ্যাক্টরি বছরে সাড়ে চারশো কোটি শলাকা উৎপাদন করে।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন রংপুর বিড়ি মালিক সমিতির সভাপতি মজিবুর রহমান, সাধারন সম্পাদক সাদাকাত হোসেন ঝন্টু, মামুনুর রশিদ,বগুড়া বিড়ি মালিক সমিতির আহ্বায়ক আনোয়ার হোসেন রানা।