চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

বালিশকাণ্ডে জড়িত প্রকৌশলী ছাত্রদলের ভিপি: প্রধানমন্ত্রী

পাবনার রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে বালিশকাণ্ডে জড়িত প্রকৌশলী বুয়েটে ছাত্রদলের ভিপি ছিলেন বলে দাবি করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, একজন বালিশতত্ত্ব নিয়ে এসেছেন। পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্রের ওই ঘটনায় যিনি দায়িত্বে ছিলেন, তার কিছু পরিচয় আমরা পেয়েছি। এক সময় তিনি বুয়েটে ছাত্রদলের নির্বাচিত ভিপিও নাকি ছিলেন।

সোমবার একাদশ জাতীয় সংসদের তৃতীয় অধিবেশনে চলতি অর্থবছরের সম্পূরক বাজেটের ছাঁটাই প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এ দাবি করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন: তাকে (প্রকৌশলী মাসুদুল আলম) সেখান থেকে সরানো হয়েছে। যখনই তথ্য পেয়েছি, সঙ্গে সঙ্গে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছি। তাদের (বিএনপি) এমন লোক রয়ে গেছেন, জন্ম থেকেই তাদের চরিত্র দুর্নীতির। তার কারণও আছে। এই দলটির প্রতিষ্ঠাতা সেনাপ্রধান থাকা অবস্থায় সংবিধান ও সামরিক আইন লঙ্ঘন করে পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট খন্দকার মোশতাকের সঙ্গে হাত মিলিয়ে ছিলেন।

তিনি দাবি করেন: জাতির পিতাকে সপরিবারে হত্যার সঙ্গে জিয়াউর রহমান জড়িত ছিলেন। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর খুনিদের রক্ষায় ইনডেমনিটি (দায়মুক্তি) অধ্যাদেশ ভোটারবিহীন পার্লামেন্টে পাস করিয়ে ছিলেন। শুধু তাই নয় অস্ত্রের মুখে সায়েম সাহেবকে ক্ষমতা থেকে হটিয়ে দিয়ে নিজেকে নিজে রাষ্ট্রপতি ঘোষণা করে ক্ষমতায় এসেছিলেন জিয়া। ক্ষমতা দখল করার পর তাদের হাতে যে দল গড়ে ওঠে, তাদের চরিত্রটা জানা উচিত। তাদের উৎসটাই হচ্ছে দুর্নীতি। দুর্নীতির মধ্যে থেকে উঠে আসা।

পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্রের বালিশ ক্রয়ে দুর্নীতি প্রসঙ্গে শেখ হাসিনা বলেন: বালিশতত্ত্ব নিয়ে আমারও একটা প্রশ্ন আছে। পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্র সেখানে গড়ে উঠছে। সেখানে আর কিছু না পেয়ে পেলো বালিশ। এটা কোন বালিশ? কী বালিশ? সেটাও একটা প্রশ্ন? এটা কী তুলার বালিশ? কোন তুলা? কার্পাস তুলা না শিমুল তুলা… নাকি সিনথেটিক তুলা? নাকি জুটের তুলা। আর বালিশ নিয়ে রাস্তায় আন্দোলন করতে দেখলাম। এত মানুষ, এত বালিশ একদিনে কিনে ফেললো কীভাবে? এই বালিশ কেনার টাকার জোগানদারটা কে? সেটা আর বলতে চাই না।

FacebookTwitterInstagramPinterestLinkedInGoogle+YoutubeRedditDribbbleBehanceGithubCodePenEmail