চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘ফ্যান্টম’ বিশ্বের সবচেয়ে দামী ছবি

প্রচলিত আছে একটি ছবি হাজারো শব্দের জন্ম দেয়। ছবির রয়েছে হাজারো অনুভূতি, আবেগ ও প্রয়াস। ছবি মানুষকে কাঁদায়-হাসায় আবার অতীত রোমন্থনেও ছবির বিকল্প হয় না। কিছু ছবি আছে যা মানসিক বিকাশ ও দৈনন্দিন জীবনেও প্রভাব ফেলে। কিন্ত কিছু ছবি প্রথম দেখলেই মানুষের হৃদয়ে জন্ম দেয় হাজারো কৌতুহল ও শিহরণের। তেমনই একটি আলোড়ন সৃষ্টিকারী ছবি হলো ‘ফ্যান্টম’।

বিজ্ঞাপন

‘ফ্যান্টম’ নামে বিশ্বে আলোড়ন সৃষ্টিকারী এ ফটোটি ২০১৪ বিক্রি করা হয়ে ৬.৫ মিলিয়ন ডলারে। অস্ট্রেলিয়ান ল্যান্ডস্কেপ ফটোগ্রাফার পিটার লিক এ ছবিটি তোলেন। যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোয়ানা অঙ্গরাজ্যের এন্টিল ক্যানিয়ানে তোলা এই ছবিটি বিশ্বের সবচেয়ে দামী ছবি বলে পরিচিত।

এটি সাদা-কালো ছবি এবং কোন প্রকার এডিটিংও করা হয়নি। প্রথম দেখাতে ছবিটিকে একটি ভ্রান্ত ও জ্বলজ্বলে মরিচীকা মনে হতে পারে। এছাড়া ছবিটিতে বেলে মাটি ও বাঁকা গুহার দৃশ্য নিঁখুতভাবে ফুটে উঠেছে। তবে প্রথম দেখাতে এটিকে ভৌতিক কারসাজি বলে মনে হতে পারে।

বিজ্ঞাপন

ছবিটি সম্পর্কে ফটোগ্রাফার পিটার লিক বলেছিলেন, ‘প্রকৃতির মাঝে যে শক্তি ও সৌন্দর্য আছে তা মানুষকে উৎসাহিত করার জন্য যথেষ্ট। এ ছবিতে সেই বার্তাই ফুটে উঠেছে।’

মজার বিষয় হলো নিরাপত্তার স্বার্থে এই ছবির ক্রেতা নিজের নাম ও ঠিকানা প্রকাশ করেন নি। তবে জানা যায় লস এঞ্জেলসের আইনজীবী জোসু রোথের প্রতিনিধিত্বে এই ছবিটি কেনা হয়।

তবে সামান্য কটা টাকার লোভে পিটার লিক কেনো এই অনবদ্য ছবি বিক্রি করলেন ? এই বিতর্ক আজও তার পিছু ছাড়েনি।

তিনি এর জবাবে একবার বলেছিলেন, শুধু টাকা নয় এই ছবির সাথে জড়িয়ে আছে তার আবেগ ও ভালোবাসা। যে ক্রেতা এই ছবিটি কিনেছেন তিনি ফ্যান্টমের প্রেমে আচ্ছন্ন হয়েই কিনেছেন। ছবিটির ক্রেতার প্রকৃতি ও শিল্পের প্রতি ভালো লাগার কারণেই তিনি তার প্রিয় ‘ফ্যান্টম’বিক্রিতে রাজী হয়েছিলেন।