চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ফিফার প্রত্যাখানে ঝুঁকিতে হ্যাজার্ডের রিয়াল যাত্রা

দলবদলে নিষেধাজ্ঞা পিছিয়ে দেয়ার জন্য আপিল করেছিল চেলসি। সেই আপিল খারিজ করে দিয়েছে ফিফা। ফলে পরবর্তী দুই দলবদল মৌসুমে আর কোনো খেলোয়াড় কিনতে পারছে না চেলসি। এতে শঙ্কায় পড়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। খেলোয়াড় কিনতে না পারায় দলের সেরা খেলোয়াড় এডেন হ্যাজার্ডকে নাও ছাড়তে পারে ইংলিশ ক্লাবটি!

বিজ্ঞাপন

অপ্রাপ্তবয়স্ক খেলোয়াড় কেনার দায়ে ২০২০ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত চেলসির খেলোয়াড় কেনার ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ফিফা! খেলোয়াড় কিনতে না পারলেও ধারে থাকা খেলোয়াড় ও একাডেমির খেলোয়াড়দের আগামী মৌসুমে খেলাতে পারবেন চেলসি কোচ মাউরিসিও সারি।

বিজ্ঞাপন

২০১৩ সালে বুরকিনো ফাসোর ১৮ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড ব্রার্টান্ড ত্রাওরেকে দলে টানে চেলসি। কিন্তু তাকে নিবন্ধিত করানো হয় ২০১৪ সালের জানুয়ারিতে। তাতেই সন্দেহ বাড়ে ফিফার। পরে অনুসন্ধানে বের হয়ে আসে সেসময় অপ্রাপ্তবয়স্ক অবস্থায় বর্তমানে লিওঁতে খেলা ত্রাওরেকে কিনেছিল ব্লুজরা।

যেহেতু খেলোয়াড় কেনা হচ্ছে না, তাই আগামী মৌসুমে হ্যাজার্ডের ব্যাপারে ঝুঁকি নাও নিতে পারে চেলসি। এমনকি ফর্মহীন খেলোয়াড়দেরও আগামী মৌসুমে বিক্রি করতে করতে রাজী নন কোচ সারি।

হ্যাজার্ডকে এই মৌসুমে বিক্রি না করলে অন্য ঝামেলাতেও পড়তে পারে চেলসি। ২০২০ সালে তাদের সঙ্গে শেষ হয়ে যাবে বেলজিয়ান ফরোয়ার্ডের চুক্তি। নতুন চুক্তিতে না আসলে ২০২০ সালের পর ফ্রী এজেন্ট হয়ে যাবেন হ্যাজার্ড। তখন কোনপ্রকার ট্রান্সফার ফী ছাড়াই তাকে দলে টানতে পারবে রিয়াল! তবে সেই সময় পর্যন্ত স্প্যানিশ ক্লাবটি অপেক্ষায় থাকবে কিনা সেটাও এখন দেখার।