চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ফারুকীর নতুন ছবি ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’, সুযোগ পেয়ে উচ্ছ্বসিত নওয়াজ

‘নো ল্যান্ডস ম্যান’-এর শুটিং শুরু হবে চলতি বছরেই...

*ফারুকীর প্রথম ইংরেজি ভাষার ছবি ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’
*ছবিতে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করবেন বলিউডের প্রভাবশালী অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী
*ছবিটির সহ-প্রযোজকও নওয়াজউদ্দিন
*‘নো ল্যান্ডস ম্যান’-এর মধ্য দিয়ে প্রথমবার চলচ্চিত্র প্রযোজনায় নাম লেখাতে যাচ্ছেন অভিনেত্রী তিশা

চলতি সময়ে ভারতের মেধাবী অভিনেতাদের তালিকা করলে তার শীর্ষে যে নামটি জায়গা করে নিবে, তিনি নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী। যে কোনো জনরার ছবিতে একের পর এক কারিশমা দেখিয়ে যাচ্ছেন তিনি। গেল বছর নেটফ্লিক্সের ‘সেক্রেড গেমস’-এ অভিনয় করে তোলপাড় ফেলে দিয়েছেন এই চরিত্রাভিনেতা। এখন তার সিডিউল পাওয়া বলিউড নির্মাতাদের কাছে ‘সৌভাগ্য’ হিসেবে বিবেচ্য! অথচ এই অভিনেতা নতুন একটি ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়ে টুইট করলেন: ‘আমাকে সুযোগ দেয়ার জন্য ধন্যবাদ!’

বিজ্ঞাপন

হ্যাঁ। নওয়াজউদ্দিনের নতুন ছবির নাম ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’! আর ছবিটি পরিচালনা করছেন বাংলাদেশের মেধাবী নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী।

সম্প্রতি এই ছবিতে নওয়াজউদ্দিনের চুক্তিবদ্ধ হওয়ার খবরটি ফলাও করে প্রচার করেছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম। বিশেষ করে ভ্যারাইটির অনলাইন ভার্সনে ছবিটি নিয়ে বিস্তারিত কথা বলেছেন নওয়াজ। সেখানে ফারুকীর ছবির চিত্রনাট্য পড়ে নিজের মুগ্ধতার কথা জানিয়েছেন ‘গ্যাংস অব ওয়াসিপুর’ খ্যাত এই অভিনেতা।

ফারুকীর নতুন ছবিতে যুক্ত হওয়া প্রসঙ্গে ভ্যারাইটিকে নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী বলেন, এই সিনেমার চিত্রনাট্যটা আমি প্রথম যখন পড়ি তখন থেকে এটি আমার সাথে রয়ে গেছে। জোরালো রসবোধ, ব্যাঙ্গ-বিদ্রুপ এবং আবেগের মধ্য দিয়ে আজকের যুগের এক অদ্ভুত পৃথিবীকে আবিষ্কার করে এই চিত্রনাট্য। কিছু সিনেমা আছে যেগুলো আপনার অবশ্যই বানানো উচিত। একজন অভিনেতার সামর্থ্যের বাইরেও এই প্রজেক্টের সাথে যুক্ত হওয়ার জন্য আমি নিজের ভিতর একটা তাগিদ অনুভব করছিলাম, কারণ আমার মনে হয়েছে এটা এমন একটা সিনেমা অবশ্যই যেটা তৈরি হওয়া দরকার।

‘নো ল্যান্ডস ম্যান’ হতে যাচ্ছে ফারুকীর প্রথম ইংরেজি ভাষার চলচ্চিত্র। এরআগে এই ছবির চিত্রনাট্য একাধিক ফেস্টিভালে ফান্ড জিতে নেয়। ২০১৪ সালে প্রথম বুসান ফিল্ম ফেস্টিভালে এশিয়ান প্রজেক্ট মার্কেটে নির্বাচিত হয়। এরপর একই বছর নভেম্বরে ভারতের এনএফডিসি আয়োজিত ফিল্ম বাজারে শ্রেষ্ঠ প্রজেক্টের পুরস্কার লাভ করে। একই বছরের ডিসেম্বরে মোশন পিকচার্স অ্যাসোসিয়েশন অফ আমেরিকা এবং এশিয়া প্যাসিফিক স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ড-এর যৌথ উদ্যোগে দেয়া অ্যাপসা ফিল্ম ফান্ড লাভ করে। প্রতিবছর এশিয়ার দুটি চলচ্চিত্রকে এই ফিল্ম ফান্ডের জন্য নির্বাচিত করা হয়। ২০১৪ সালে এটি পেয়েছিলেন পরিচালক মোস্তফা সরয়ার ফারুকী এবং ইরানের বিখ্যাত নির্মাতা জাফর পানাহি।

ছবিটি নিয়ে দীর্ঘসূত্রিতার কারণ কী? জানতে চাইলে বৃহস্পতিবার রাতে চ্যানেল আই অনলাইনকে মোস্তফা সরয়ার ফারুকী বলেন, এটাতো বিশাল প্রজেক্ট। চার দেশে শুটিং, প্রচুর মানুষের সংযুক্তি, এছাড়া বাজেটেরওতো একটা বিষয় আছে। এসব কারণেই একটু সময় লেগেছে।

নির্মাতা মনে করেন চলতি বছরেই এই ছবির শুটিং শুরু করতে পারবেন তিনি। প্রি-প্রোডাকশনের কাজ শুরু করে দিয়েছেন জানিয়ে ফারুকী বলেন, মে মাসে আমেরিকা যাচ্ছি। আশা করছি এই সফরে প্রি-প্রোডাকশনের সমস্ত কাজ গুছিয়ে নিতে পারবো। আর সব ঠিক থাকলে এই বছরের শেষের দিকে শুটিংয়ে নেমে যাবো।

ছবিতে নওয়াজউদ্দিনকে দেখা যাবে কেন্দ্রীয় চরিত্রে। তার বিপরীতে আমেরিকার একজন অভিনেত্রীকে চুক্তিবদ্ধ করতে কথা চলছে বলে জানান ফারুকী। মে মাসের সফরে সেটাও চূড়ান্ত হয়ে যাবে। এছাড়া বাংলাদেশ থেকেও একজন সহ-অভিনেতাকে দেখা যাবে, তবে এখনো চূড়ান্ত হয়নি।

ফারুকী জানান, চলচ্চিত্রটির ৭০ ভাগ শুটিং হবে আমেরিকায়। আর বাকি ৩০ ভাগ শুটিং হবে ভারত, বাংলাদেশ এবং অস্ট্রেলিয়ায়। ‘নো ল্যান্ডস ম্যান’ চলচ্চিত্রটি পৃথিবীতে চলমান অভিবাসন এবং পরিচয় রাজনীতি দ্বারা অনুপ্রাণিত। চলচ্চিত্রটিতে নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি শুধুমাত্র অভিনয়ই করছেন না, পাশাপাশি তার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ‘ম্যাজিক ইফ ফিল্মস’ চলচ্চিত্রটি প্রযোজনাও করছেন। এই চলচ্চিত্রটি হবে প্রধান চরিত্রে অভিনীত নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকীর প্রথম ইংরেজি ভাষার সিনেমা এবং তার প্রযোজিত প্রথম সিনেমা।

শুধু তাই নয়, এই চলচ্চিত্রের মধ্য দিয়ে প্রথমবার প্রযোজনায় আত্মপ্রকাশ ঘটবে অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশার। নওয়াজ ও তিশা ছাড়াও ছবিটি প্রযোজনা করছেন বাংলাদেশের স্কয়ার গ্রুপের অঞ্জন চৌধুরী ও মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ছবিয়াল।

এদিকে মুক্তির প্রতীক্ষায় আছে ফারুকীর আরেক আলোচিত ছবি ‘শনিবার বিকেল’। তারকাবহুল এই ছবিটি বর্তমানে সেন্সর বোর্ডে আটকে আছে। গেল জানুয়ারি মাসে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ড ছবিটির নানা অসঙ্গতি দেখিয়ে ‘ব্যান’ করে। সেইসাথে সেন্সর ছাড়পত্র স্থগিত করে।