চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ফটোসেশনে না থাকা ‘সাকিবের জন্য দুর্ভাগ্য’

বিশ্বকাপের জন্য বাংলাদেশ দলের জার্সি উন্মোচন ও ফটোসেশনে ছিলেন না সাকিব আল হাসান। আইপিএল খেলে রোববার ঢাকায় ফিরে সোমবার শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে আসলেও এ অলরাউন্ডার অনুষ্ঠানিকতা শুরুর আগে চলে যান। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন পরে তাকে ফোন করলেও পাননি প্রত্যাশিত সাড়া।

বিজ্ঞাপন

সাকিবের এমন আচরণে অসহায়ত্বের ছাপ থাকল নাজমুল হাসানের কথায়, ‘দুঃখজনক, আর কী বলবো! এটা দুঃখজনক, যেহেতু টিম ফটোসেশন ছিল। আমি এসেই জিজ্ঞেস করেছি। এমন কী আমি এখানে যখন ঢুকি তখন তাকে ফোন করেছিলাম। কোথায় তুমি? বলল, আমি তো চলে এসেছি। ও যে এসেছে আমি জানিও না, পত্রিকায় পড়েছি। সাকিব বলল, আপনার বাসায় আসব রাতে। আমি বলেছি, এখন একটু দেখা হোক। বলল, আমি তো বেরিয়ে গেছি।’

বিজ্ঞাপন

‘এখানে জিজ্ঞেস করে জানলাম, সাকিবকে আগেই বলা হয়েছে ফটোসেশন আছে। জাতীয় দল যাচ্ছে একসাথে, ফটোসেশনে একসাথে থাকবে। এমনিতেই তো প্র্যাকটিসে ছিল না। এটা আমরা আশা করেছিলাম। কিন্তু সাকিব তো নেই, এটাই বাস্তবতা।’

দেড় বছর ধরে সাকিবকে মাঠে নিয়মিত পাচ্ছে না বাংলাদেশ দল। গত বছর সাউথ আফ্রিকা সফরে টেস্ট সিরিজের দল থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন। চোটের কারণে বেশ কয়েকটি সিরিজ খেলতে পারেননি। সবশেষ বিপিএলের ফাইনালে পাওয়া আঙুলের চোট কাটিয়ে উঠতেই সাকিব ভারত চলে যান আইপিএল খেলতে।

আয়ারল্যান্ড সফরের আগে দেশে ফিরে এলেও সাকিবকে পাওয়া যায়নি সোমবারের কার্যক্রমে। সাকিবের শূন্যতা দলের মেলবন্ধন নষ্ট করে কিনা, এমন প্রশ্নের জবাবে বিসিবি সভাপতি বললেন, ‘আমার মনে হয় টিমের অন্যরা এতদিনে অভ্যস্ত হয়ে গেছে। যাই হোক, এছাড়া আর কী বলব। আমি মনে করি এটা সাকিবের জন্য দুর্ভাগ্য। বিশ্বকাপ টিম যাচ্ছে এটার সঙ্গে যে থাকতে পারল না, সেটা আমি মনে করি ওরই কপাল খারাপ।’

নাজমুল হাসানের কথায়, সতীর্থরা অভ্যস্ত হয়ে গেছেন সাকিবকে ছাড়া। প্রশ্ন উঠছে তাহলে বিসিবিও কী সাকিবের এমন আচরণের সঙ্গে অভ্যস্ত হয়ে যাবে? বিসিবি সভাপতি বললেন, ‘প্রশ্নই আসে না। টিম যখন পরশু দিন চলে যাচ্ছে তাই এটা নিয়ে এখন আর কিছু বলতে চাচ্ছি না।’