চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

প্রিমিয়ার লিগে সানি-তাসকিন!

৬ আইকন প্লেয়ারসহ রোববার অনুষ্ঠিত হবে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ ক্রিকেট-ডিপিএল’র দলবদল। আইপিএলে অংশ নেয়া সাকিব আল হাসান এবং মুস্তাফিজুর রহমানের জন্য থাকছে বিশেষ সুযোগ।
আইসিসি’র নিষেধাজ্ঞা থাকলেও ডিপিএলে খেলার সুযোগ পাচ্ছেন তাসকিন আহমেদ ও
আরাফাত সানি। তবে বিসিবি’র নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের আগ পর্যন্ত ডিপিএলে অংশ
নিতে পারবেন না শাহাদাত হোসেন।

এবার প্লেয়ারদের পারিশ্রমিক কমিয়ে দেয়া হয়েছে। ওই অর্থ অনুদান হিসেবে পাচ্ছে ক্লাবগুলো। সর্বোচ্চ ৩০ লাখ থেকে সর্বনিম্ন সাড়ে ৩ লাখ টাকার মধ্যে প্লেয়ারদের দলে নিতে পারবে ১২টি ক্লাব। পুরোনো প্লেয়ার দু’জন রাখা বাধ্যতামূলক।

দেশের ক্লাব ক্রিকেটের অন্যতম বড় আসর ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ এবার কিছুটা ভিন্ন আমেজে। নিয়ম-নীতিতে বেশ পরিবর্তন এনেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। দলবদল হবে লটারী বা ‘প্লেয়ার ড্রাফট’র মাধ্যমে। যাকে বলা হচ্ছে ‘ড্রাফট কলিং’।

বিসিবি সহ-সভাপতি মাহবুব আনাম বলেন, ১২টি ক্লাবের জন্য তালিকায় রাখা হবে প্রায় ২০৭ জন ক্রিকেটারকে। এদের
মধ্য থেকে প্রতিটি ক্লাবকে বাধ্যতামূলক ১০ জন করে ক্রিকেটারকে দলে ভেড়াতে
হবে। আইকন ও ‘এ’ প্লাস ক্যাটাগরি ব্যতীত গতবার খেলেছেন এমন ২জন করে
ক্রিকেটার দলে রাখতে পারবে ক্লাবগুলো।

১২০ জন প্লেয়ারকে ইতোমধ্যেই তালিকাভুক্ত করা হয়েছে ‘প্লেয়ার ড্রাফট’র জন্য। তবে ক্রিকেট বোর্ডের নিবন্ধিত প্লেয়াররাই অংশ নিতে পারবেন লিগে। সে সঙ্গে ক্লাবগুলোর জন্য থাকছে ৬ সপ্তাহের মধ্যে অর্থ পরিশোধের বাধ্য-বাধকতা।

বিসিবি সহ-সভাপতি বলেন, যে সকল ক্রিকেটার অবিক্রীত থেকে যাবেন তাদের মধ্য থেকে গ্রেড ভিত্তিতে
পারিশ্রমিক দিয়ে ১৫ সদস্যের স্কোয়াড পূর্ণ করবে ক্লাবগুলো। প্লেয়ার্স
ড্রাফট শেষ হওয়ার এক সপ্তাহের মধ্যে চূড়ান্ত তালিকা দিতে হবে বিসিবির কাছে।
এবারও মাত্র ১জন করে বিদেশি ক্রিকেটারকে খেলাতে পারবে। তবে ১০জন বিদেশি
ক্রিকেটারকে রেজিস্ট্রেশন করাতে পারবে ক্লাবগুলো।