চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

প্যারিস জলবায়ু চুক্তি জরুরি: বন ও পরিবেশ সচিব

বন ও পরিবেশ সচিব বলেছেন, বৈশ্বিক গড় তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রণে প্যারিস জলবায়ুু চুক্তি জরুরি। এটি বাস্তবায়ন হলে সুন্দরবনসহ প্লাবিত হওয়ার ঝুঁকি থেকে রক্ষা পাবে বাংলাদেশের নিম্নাঞ্চল।

বিজ্ঞাপন

বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তন, ইস্যুটি গত কয়েক দশকে বিশ্ব মোড়লদের মাথা ব্যাথার কারণ হিসেবে দেখা হচ্ছে। উন্নত দেশগুলোর দ্রুত নগরায়ন, শিল্পায়নের কারণে বাড়ছে বিশ্বের গড় তাপমাত্রা, গলছে বরফ, তলিয়ে যাওয়ার ঝুঁকিতে থাকছে নিম্নাঞ্চল।

এ অবস্থায় বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধি সর্বোচ্চ ২ ডিগ্রির নিচে রাখার ব্যাপারে গত ডিসেম্বর প্যারিস সম্মেলনে একমত হয় বিশ্বের ১৯৫ টি দেশ। শুক্রবার নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সদর দপ্তরে ১৭৫ টি দেশ প্যারিস চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছে। আর কয়েকটি দেশের স্বাক্ষর করা শেষ হলেই চুক্তিটি কার্যকর হবে। যদিও জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য বাংলাদেশের মত উন্নয়নশীল দেশগুলোর দায় ততটা নেই তবুও এ চুক্তির বাস্তবায়ন হলে এর সুফল পাবে বাংলাদেশের মত জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকিতে থাকা দেশগুলো।

বিজ্ঞাপন

বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ বলেছেন, জলবায়ু বিরূপ হলে ব্যাপক পরিমাণে মাইগ্রেশন হতে পারে, জনসাধারণ ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে, সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা আরও বাড়তে পারে। সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বাড়লে সুন্দরবনসহ বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকাগুলো ভীষণভাবে আক্রান্ত হয়ে তলিয়ে যেতে পারে।

বাংলাদেশের জন্য এটি শুধু একটি চুক্তিই নয়, উন্নত দেশগুলোর প্রতিশ্রুতির পূরণও।

এ বিষয়ে সচিব বলেন, বাংলাদেশ কার্বন নিঃসরণে এমন কোনো অবদান রাখে না। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশের অবস্থান অনেক ভালো। কিন্তু যারা ভূমিকা রাখছে, তাদের নিঃসৃত কার্বন বিশ্বকে উষ্ণ করছে। কার্বন নিঃসরণের কারণে যে বৈশ্বিক উষ্ণায়ন, তা এ চুক্তির মাধ্যমে কমে যাবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

এ চুক্তির বাস্তবায়ন হলে ডুবে যাওয়ার ঝুঁকি থেকে বাঁচতে পারবে সুন্দরবনসহ বাংলাদেশের উপকূলীয় অঞ্চল।