চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

পাসপোর্ট ছাড়া বিমানের পাইলট কেন এবং কীভাবে কাতার গেলেন?

প্রধানমন্ত্রীকে আনতে বাংলাদেশ বিমানের পাইলট ক্যাপ্টেন ফজল মাহমুদ পাসপোর্ট ছাড়া কেন এবং কীভাবে কাতার গেলেন, তা জানতে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে সরকার।

বিজ্ঞাপন

একইসঙ্গে এ ঘটনায় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষের দায়িত্বে অবহেলার বিষয়ে দায়-দায়িত্ব নিরূপণ এবং বহিরাগমন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের ত্রুটি নিরুপণের বিষয়টিও খতিয়ে দেখবে তদন্ত কমিটি।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব নাসিমা বেগমকে আহ্বায়ক করে শুক্রবার এক প্রজ্ঞাপনে এই তদন্ত কমিটি গঠনের কথা জানানো হয়।

বিজ্ঞাপন

তদন্ত কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব হেলাল মাহমুদ শরীফ, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব মুস্তাকীম বিল্লাহ ফারুকী এবং জননিরাপত্তা বিভাগের যুগ্মসচিব জাহাঙ্গীর আলম।

এই কমিটিকে জরুরি ভিত্তিতে তিন কর্মদিবসের মধ্যে মন্ত্রিপরিষদ সচিবের নিকট প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। প্রতিবেদন জমা দেওয়ার পর দ্রুত তা কার্যকর হবে বলেও ওই প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আনতে বুধবার রাতে তিনি কাতার বিমানবন্দরে পৌঁছান। সেখানে তার সাথে পাসপোর্ট না থাকার বিষয়টি ধরা পড়ে। এর পরিপ্রেক্ষিতে তাকে সেদেশের ইমিগ্রেশনে আটকে রাখা হয়।

এ অবস্থায় প্রধানমন্ত্রীকে আনতে কাতার গেছেন বাংলাদেশ বিমানের অন্য পাইলট ক্যাপ্টেন আমিনুল। আর আগে থেকে সেখানে আছেন পাইলট ফজল মাহমুদের সঙ্গে অতিরিক্ত পাইলট হিসেবে যাওয়া ক্যাপ্টেন সাজ্জাদ।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শনিবার কাতার হয়ে দেশে ফেরার কথা রয়েছে।