চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

পাকিস্তানের বিপক্ষেই সেরাটা চান কোহলি

এক বলও না গড়িয়ে পরিত্যক্ত হয়েছে ভারত-নিউজিল্যান্ড ম্যাচ। পরে সংবাদ সম্মেলনে তাই ম্যাচ নিয়ে খুব একটা কথা বলার আগ্রহ দেখালেন না সংবাদকর্মীরা। তাদের সব আগ্রহের বিষয়ে থাকল ১৬ জুন ভারত-পাকিস্তানের দ্বৈরথ। কোহলিকে পেয়ে তারা জানতে চাইলেন, চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের নিয়ে কী পরিকল্পনা-লক্ষ্য। ভারত অধিনায়ক পরিকল্পনা ফাঁস করলেন যদিও, তবে জানিয়ে দিলেন লক্ষ্য। নিজেদের সেরাটা দিয়ে সরফরাজের দলকে গুঁড়িয়ে দেয়া!

বিজ্ঞাপন

ক্রিকেট বিশ্বে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ মানেই প্রতিমুহূর্তে উত্তাপ। বিশ্বকাপে হলে তো কথাই নেই। যেখানে দুই দলের লড়াই মানে বাড়তি উত্তেজনার চেয়েও বাড়তি কিছু।

এবারের বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের আগে পরিস্থিতি যদিও বেশ থমথমে। কারণটা রাজনৈতিক। পুলওয়ামা হামলার পর যুদ্ধের সামনে দাঁড়িয়ে গিয়েছিল দুই দেশই। একে অপরের ওপর চালিয়েছে বিমান হামলা। ভারতীয় বিমান ভূপাতিত করে পরে বৈমানিক অভিনন্দনকে ফেরত পাঠিয়েছে পাকিস্তান। এমন অবস্থা যে পাকিস্তানের সঙ্গে সব সম্পর্ক ছিন্ন করতে চেয়েছিলেন ভারতীয়রা। জেরে বিশ্বকাপে পাকিস্তান ম্যাচ বয়কটের ব্যাপারে জোরাল কথা বলেছিলেন ভারতের সাবেকরা।

বিজ্ঞাপন

শেষ পর্যন্ত ম্যাচটা হচ্ছে। বৃষ্টি বাগড়া না দিলে হয়তো একে অপরের সঙ্গে হাতও মেলাবেন বৈরি দুই দেশের খেলোয়াড়রা। এরপরই আর ছাড় নয় বলছেন ভারতীয় দলপতি। বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে অপরাজিত থাকার রেকর্ডটা কোহলি বাড়িয়ে নিতে চান আরও এক ম্যাচ।

‘কয়েকবছর ধরেই বিশ্বকাপে প্রতিযোগিতা বেশ কঠিন হচ্ছে। এটি একটি বৃহৎ আসর। এখানে খেলতে আসা অনেক গর্বের। আমাদের সেরাটা বের করে নিয়ে আসে। বড় ম্যাচে তো আরও।’

‘রোববার আমরা কী করবো সে বিষয়ে আমাদের মন স্থির করতে হবে। পাকিস্তানের বিপক্ষে কী করবো সেটা ঠিক করতে হবে। পরিকল্পনা অবশ্যই একটা আছে, তার বাস্তবায়ন করাটা জরুরি।’

মাঠে নেমে ভারত-পাকিস্তান লড়াইয়ের উত্তাপটা ভুলে যাওয়ারই পক্ষপাতী কোহলি, ‘যত দ্রুতই আপনি মাঠে নামবেন ততই আপনি শান্ত, নিশ্চিন্ত হয়ে যাবেন। বাইরে থেকে হয়তো অনেক চাপ, উত্তেজনা থাকবে। কিন্তু আমাদের পরিকল্পনা মাফিক এগোতে হবে।’