চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নারী নির্যাতন মামলায় এবার সানির সঙ্গে আসামী তার মা

ক্রিকেটার আরাফাত সানির বিরুদ্ধে এবার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন তার কথিত স্ত্রী নাসরিন সুলতানা।

আজ বুধবার দুপুরে ঢাকার ৪ নম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল এস এম রেজানুর রহমানের আদালতে মামলাটি করেন নাসরিন।

আদালত নাসরিনের জবানবন্দি রেকর্ড করে; অভিযোগ তদন্তে মোহাম্মদপুর থানার পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

মামলার বিবরণে বলা হয়েছে, ২০১৪ সালের ৪ ডিসেম্বর এই নারীর সঙ্গে আরাফাত সানির বিয়ে হয়। দেনমোহর ছিল পাঁচ লাখ টাকা। বিয়ের পর মিরপুরের একটি বাসায় তারা সংসার করেন। কিন্তু ছয় মাস পর আরাফাত সানির মা নারগিস আক্তারের পরামর্শে সানি ওই নারীর কাছে ২০১৫ সালের ১৫ জুলাই ২০ লাখ টাকা দাবি করেন। তখন ওই টাকা না দিলে তাকে সংসার করতে দেবেন না বলে হুমকি দেন নারগিস আক্তার।

এর আগে নাসরিন সুলতানা তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৫৭ (২) ধারায় মোহাম্মদপুর থানায় মামলা করেন।

ওই মামলার ভিত্তিতে ১৯ জানুয়ারি সকালে রাজধানীর আমিনবাজার থেকে সানিকে গ্রেফতার করে মোহাম্মদপুর থানা পুলিশ।

ওই তরুণীর অভিযোগ, আরাফাত সানি বিয়ের মিথ্যা কাগজপত্র তৈরি করে দীর্ঘদিন তার সঙ্গে থেকেছেন। পরবর্তীতে, স্ত্রীর মর্যাদা দাবি করলে ফেসবুকের মেসেঞ্জারে ‘আপত্তিকর’ ছবি পাঠিয়ে ‘ব্ল্যাকমেইল’র চেষ্টা করেন সানি।

গ্রেফতারে পর তাকে আদলতে হাজির করে পুলিশ পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করলে এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

পরবর্তীতে নাসরিন সুলতানার কিছু ব্যক্তিগত ছবি নিজের মোবাইল ফোন থেকে আপলোড হওয়ার কথা রিমান্ডে পুলিশের কাছে স্বীকার করেন সানি।

এরপর ২৩ জানুয়ারি সানির বিরুদ্ধে যৌতুকের মামলাও করেন নাসরিন সুলতানা।