চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নতুন মন্ত্রিসভায় চমকের কারণ জানালেন ওবায়দুল কাদের

দশম জাতীয় সংসদ থেকে মাত্র দু’জন মন্ত্রী একাদশ সংসদের এবারের মন্ত্রিসভায়। বাদ পড়েছেন আগের সরকারে ৩৬জন পূর্ণমন্ত্রী। জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের মৃত্যুতে আরেকটি এমনিতের খালি। ২৪ মন্ত্রী তালিকায় ২২জনই নতুন। বলতে গেলে অনেকটাই চমকে দেওয়া মন্ত্রিসভা।

দ্বিতীয় দফায় সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ শেষে বঙ্গভবন থেকে বের হয়ে সাংবাদিকদের এমন চমকের আসল কারণ জানালেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

ওবায়দুল কাদের বলছেন: সংগঠন আওয়ামী লীগের সঙ্গে যেন সরকার মিশে না যায়, সেদিকটাতে নজর রেখেই এবারের মন্ত্রিসভা। যারা বাদ পড়েছেন তাদের হারানোর কিছু নেই বলেও মনে করছেন আওয়ামী লীগের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সাংগঠনিক এ নেতা।

ইশতেহার বাস্তবায়ন আওয়ামী লীগের জন্য চ্যালেঞ্জ দাবি করে কাদের বলেন: ইশতেহারে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যে প্রতিশ্রুতিগুলো রয়েছে, সেগুলো অক্ষরে অক্ষরে পালন করা এবং বাস্তবায়ন করা আওয়ামী লীগের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ।  এ চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় আওয়ামী লীগ সরকোরে তিন ধাপের পরিকল্পনা রয়েছে।  পাঁচ বছরের এ মেয়াদে শুরুতে, মাঝে এবং শেষে এ তিন ভাগে ইশতেহারের বাস্তবায়ন করতে চায় আওয়ামী লীগ।

চমক প্রসঙ্গে তিনি বলেন: আমাদের লিডারের (শেখ হাসিনা) সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে আকার-ইঙ্গিতে আমার মনে হয়েছিল এমন কিছু হবে।

যারা মন্ত্রীত্ব হারিয়েছেন তাদের প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন: আমার মনে হয় এখানে কারো হারানোর কিছু নেই। কেউ কিছু হারাচ্ছে না। আমার মনে হয় এটা দায়িত্বের পরিবর্তন, দায়িত্বে রূপান্তর। সরকারের মধ্যে দলটা হারিয়ে যাক এটা আমরা চাইনি।

বিকেল সাড়ে ৩টায় বঙ্গভবনের দরবার হলে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যদের শপথ বাক্য পাঠ করান। এসময় সিনিয়র রাজনীতিবিদ, উচ্চপদস্থ আমলা, কূটনীতিকসহ আমন্ত্রিত অতিথিরা উপস্থিত ছিলেন।

শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠান পরিচালনা করবেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম।

শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানের শুরুতে রাষ্ট্রপতি একাদশ জাতীয় সংসদের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাকে শপথ বাক্য পাঠ করান। এরপর মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী এবং উপ-মন্ত্রীরা আলাদা আলাদা ভাগে রাষ্ট্রপতির কাছ থেকে শপথ গ্রহণ করেন।

এবারের মন্ত্রিসভায় প্রধানমন্ত্রীসহ স্থান পেয়েছেন ৪৭ জন। এদের মধ্যে মন্ত্রী ২৪ জন, প্রতিমন্ত্রী ১৯ জন ও উপমন্ত্রী ৩ জন।