চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

নতুন করে ভয়াবহ র‍্যানসমওয়্যার হামলার আতঙ্কে প্রযুক্তি বিশ্ব

চলতি বছর ক্ষতিকর র‍্যানসমওয়্যারের হামলা ভয়াবহ আকার ধারণ করবে বলে জানিয়েছে বৈশ্বিক তথ্যপ্রযুক্তি নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান কুইক হিল টেকনোলজিস। তাদের মতে, ২০১৭ সালে এক বছর আগের চেয়ে এ ধরণের হামলা ৩০০ শতাংশ বেড়েছে এবং যা আরও বাড়বে।

বিজ্ঞাপন

কুইক হিল সম্প্রতি ‘অ্যানুয়াল থ্রেট রিপোর্ট-২০১৮’ শীর্ষক এক প্রতিবেদনে এ সংক্রান্ত তথ্য প্রকাশ করেছে।

রিপোর্টে বলা হয়েছে, গত বছর বিশ্বব্যাপী র‍্যানসমওয়্যার, ক্রিপ্টোকারেন্সি মাইনিং ও জিরো-ডে এক্সপ্লয়েট হামলা গোলপাড় তৈরি করেছিল। বিভিন্ন দেশের চিন্তার কারণ হওয়া ছাড়াও অনেক ঘটনা বারবার সংবাদ শিরোনাম হয়েছে। বর্তমানে র‍্যানসমওয়্যার সমস্যা আরো প্রকট হচ্ছে। কারণ এ ধরনের হামলার সংখ্যা বাড়ছে এবং অনেকে এটিকে পেশা হিসেবে নিচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

কুইক হিল সিকিউরিটি ল্যাবস গত বছর ৯ কোটি ৩০ লাখ উইন্ডোজ ম্যালওয়্যার শনাক্ত করে, যা বিভিন্ন ব্যক্তি কিংবা ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানকে লক্ষ্যবস্তু করেছিল। প্রতিষ্ঠানটি একই সময়ে অ্যান্ড্রয়েড প্লাটফর্মে ১০ লাখ ক্ষতিকর অ্যান্ড্রয়েড ম্যালওয়্যার শনাক্ত করেছিল।

গতবছর ওয়ানাক্রাই ও নটপেটয়্যার মতো শক্তিশালী র‍্যানসমওয়্যার ব্যবহার করে বেশ কয়েকটি বড় বড় তথ্য চুরি ও ফাঁসের ঘটনা ঘটেছিল। ‘দ্য শ্যাডো ব্রোকারস’ নামের হ্যাকার গ্রুপকে এ জন্য দায়ী করা হয়ে থাকে। এছাড়া বেশকিছু ক্রিপ্টোকারেন্সি মাইনিং ক্যাম্পেইনিংয়ের জন্য এদের দায়ী করা হয়।

অপরাধের শিকার হওয়া ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান নানা ধরণের ক্রিপ্টোকারেন্সি দিয়ে বিপদ থেকে রক্ষা পেয়েছে। হঠাৎ করে বিটকয়েনের দাম বেড়ে যাবার পেছনেও এসব দায়ী বলে ধারণা করছে কুইক হিল।

সাইবার অপরাধীরা গেমিং, বিনোদন ও ব্রাউজিং সম্পর্কিত অ্যাপসকে লক্ষ্য করে হামলা চালিয়ে থাকে। কম্পিউটারের পাশাপাশি মোবাইল ডিভাইসও ঝুঁকির বাইরে না। চলতি বছর র‍্যানসমওয়্যারের পাশাপাশি ক্রিপ্টোজ্যাকিং ও কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার (এআই) ব্যবহার করে সাইবার হামলা বাড়তে পারে বলে সাবধান করেছে কুইক হিল।