চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

ধোনির সমর্থনে সাবেকদের ধুয়ে দিলেন কোহলি

রাজকোটে দ্বিতীয় টি-টুয়েন্টিতে ৩৭ বলে করেছিলেন ৪৯ রান। সেই ম্যাচে দলের প্রয়োজনে ঠিক হাত খুলে খেলতে পারেননি মাহেন্দ্র সিং ধোনি। তাই ক্ষুদে সংস্করণের ক্রিকেটে ধোনিকে খেলা ছেড়ে নতুনদের জায়গা করে দিতে বলেছিলেন দুই ভারতীয় সাবেক ক্রিকেটার ভিভিএস লক্ষ্মণ ও অজিত আগারকার। তাতে ভীষণ খেপেছেন ভারত কাপ্তান বিরাট কোহলি।

বিজ্ঞাপন

মঙ্গলবার থিরুভান্নাথাপুরামে নিউজিল্যান্ডকে ৫ উইকেটে হারিয়ে ২-১এ টি-টুয়েন্টি সিরিজ জিতে নিয়েছে ভারত। ম্যাচের পরে ধোনির সমর্থনে দুই সাবেককে একহাত নিয়েছেন কোহলিও।

বিজ্ঞাপন

‘আমি বুঝি না কেন লোকে তাকে (ধোনি) বলে খেলা ছেড়ে দিতে। আমার মাথায় আসে না। যখন আমি রান করতে পারি না তখন কেউ আমার দিকে আঙ্গুল তোলে না। কারণ আমার বয়স ৩৫ নয়, তাই? এই মানুষটা সবরকম ফিটনেস টেস্টে উত্তীর্ণ হয়েই দলে খেলেন। দলের প্রয়োজনে যেকোনো দিক থেকেই অবদান রাখতে পারেন। আপনারা যদি দেখেন অস্ট্রেলিয়া, শ্রীলঙ্কা সফরে ব্যাট হাতে তিনি ছিলেন দুর্দান্ত। নিউজিল্যান্ড সিরিজে কিন্তু তিনি খুব একটা ব্যাট করার সুযোগই পাননি।’ -ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে এভাবেই নিজের ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন কোহলি।

ক্যারিয়ারের বেশিরভাগ সময়ে ছয় থেকে আট নম্বর পজিশনে ব্যাট করেছেন ধোনি। রাজকোটে ব্যাট করেছেন ছয় নম্বরে। কিউইদের ছোঁড়া ১৯৭ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ৬৭ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে তখন কাঁপছে ভারত। ওই মুহূর্তে ধরে খেলা ছাড়া ধোনির আর কোন বিকল্পও ছিল না বলে মনে করেন কোহলি।

‘আপনাদের বুঝতে হবে কোন পজিশনে তিনি ব্যাট করেন। রাজকোটে ধোনি যখন উইকেটে আসেন সেদিন হার্দিক (পান্ডিয়া) রানই করতে পারেনি। আমরা খালি একজনকেই দিনের পর দিন কথা শুনিয়ে যাচ্ছি, এটার কোন মানেই হয় না। আমাদের পরিস্থিতিও বুঝতে হবে। তিনি যখন ব্যাট করতে নামেন তখন ওভার প্রতি আমাদের আট-নয় করে রান করতে হত। আর উইকেটও ঠিক ব্যাটসম্যানদের অনুকূল ছিল না। না বুঝে একজনকে বারবার দোষারোপ করা মোটেও কাম্য না।’