চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দেড় শতাধিক আরোহী নিয়ে ইথিওপিয়ায় উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত

পাইলট ও ক্রুসহ দেড়শ’র বেশি আরোহী নিয়ে নাইরোবি যাওয়ার পথে ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্সের একটি উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

ইথিওপিয়ার রাজধানী আদ্দিস আবাবা থেকে রোববার স্থানী সময় সকালে সকালে নাইরোবির উদ্দেশ্যে যাত্রা হওয়া ফ্লাইট ইটি ৩০২ উড়োজাহাজটি উড্ডয়নের ছয় মিনিটের মধ্যেই বিধ্বস্ত হয়। ওই সময় উড়োজাহাজটিতে ১৪৯ জন যাত্রী এবং ৮ জন ক্রু ছিলেন।

স্থানীয় সময় রোববার সকাল ১০টা ২৫ মিনিটে উড়োজাহাজটির নাইরোবির জোমো কেনিয়াট্টা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করার কথা ছিল। স্থানীয় সময় সকাল ৮টা ৩৮ মিনিটে উড্ডয়নের পর ৮টা ৪৪ মিনিটে সেটির নিয়ন্ত্রণকক্ষের সঙ্গে সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

এয়ারলাইন কোম্পানিটির এক মুখপাত্র দুর্ঘটনার তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন বলে জানিয়েছে ডেইলি মেইল।

ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্সের পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিক এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স ৮ মডেলের উড়োজাহাজটি আদ্দিস আবাবা থেকে প্রায় ৫০ কিলোমিটার দক্ষিণপূর্বে বিশোফটু শহরের কাছে ভূপাতিত হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

ঘটনাস্থলে উদ্ধার অভিযান পরিচালনার জন্য ইতোমধ্যে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলেও বিবৃতিতে জানানো হয়েছে। হতাহত সম্পর্কে এখনো নিশ্চিত তথ্য হাতে না পেলেও কর্তৃপক্ষ আশঙ্কা করছে, আরোহীদের কেউই বেঁচে নেই।

ইথিওপিয়ান প্রধানমন্ত্রী আবি আহমেদ এক পৃথক বিবৃতিতে সরকারের পক্ষ থেকে প্লেনের ক্রু ও যাত্রীদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

বিধ্বস্ত উড়োজাহাজটি মাত্র কয়েক মাস পুরনো। গত অক্টোবরের শেষ দিকেই এটি তার প্রথম ফ্লাইটে যাত্রা করেছিল।

রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্স নিজেদেরকে আফ্রিকা মহাদেশের সবচেয়ে বড় এয়ারলাইন কোম্পানি হিসেবে দাবি করে থাকে।

নিরাপদ আকাশযাত্রার বিষয়ে বেশ সুনাম রয়েছে প্রতিষ্ঠানটির। তবে এর আগে ২০১০ সালে এ কোম্পানির একটি উড়োজাহাজ বেইরুত থেকে যাত্রার কিছুক্ষণ পরই ভূমধ্যসাগরে বিধ্বস্ত হয়ে ৯০ আরোহীর সবার মৃত্যু হয়েছিল।