চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

‘দেশের স্বার্থে’ রুবেলকে বাইরে রাখছে আবাহনী

সাইড স্ট্রেইনে চোট পাওয়ায় ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ খেলতে পারছেন না রুবেল হোসেন। পাঁচ ম্যাচ ধরে এ পেসারকে পাচ্ছে না আবাহনী। সোমবার থেকে শুরু হতে যাওয়া সুপার লিগের ম্যাচেও তাকে পাওয়া যাবে কিনা সেটি অনিশ্চিত।

বিজ্ঞাপন

চলতি লিগে রুবেল সবশেষ ম্যাচ খেলেছেন গত ২৫ মার্চ, মোহামেডানের বিপক্ষে। ম্যাচে খরুচে বোলিং করার পর আর একাদশে দেখা যায়নি তাকে। পরে জানা যায় চোট পাওয়ায় দলের সেরা পেসারকে খেলাতে পারছে না আবাহনী।

আবাহনীর কোচ খালেদ মাহমুদ সুজন জানালেন, রুবেল পুরোপুরি ফিট না হলে খেলানোর ঝুঁকিও নেবে না তারা। কেননা সামনেই বিশ্বকাপ, আর রুবেল সে দলের সম্ভাব্য সদস্য।

বিজ্ঞাপন

‘যেহেতু ওর সাইড স্ট্রেইনে চোট, আর ফাস্ট বোলারের সাইড স্ট্রেইন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। যখন বল করবে তখন এই জায়গায় চাপ পড়বে বেশি। আমিও চাই না ও হালকা ফিট হয়ে খেলুক। যদি সুস্থ হয়ে পুরোপুরি ফিট হয়ে খেলতে চায়, তাহলে খুবই ভালো। যদি না হয় তাহলে আমরাও জোর করব না খেলার জন্য। আমি চাইবো না। রুবেল বাংলাদেশের জন্য অনেক বড় সম্পদ।’

সেরা দল গড়েও এবার স্বস্তিতে নেই আবাহনী। শেষ দুই ম্যাচ হেরে তারা চলে এসেছে পয়েন্ট টেবিলের তৃতীয় স্থানে। অথচ প্রিমিয়ার লিগের শুরু থেকে নবম রাউন্ড পর্যন্ত আকাশী-নীলরা ছিল শীর্ষেই।

সোমবার থেকে শুরু হচ্ছে সুপার লিগ। মিরপুরে আবাহনীর প্রতিপক্ষ তাদের পেছনে থাকা প্রাইম দোলেশ্বর। রুবেলকে তার দল ভীষণ মিস করলেও সামনে বিশ্বকাপ বলেই জোর করে খেলানোর সুযোগ নেই।

এদিকে আঙুলের চোট কাটিয়ে সেরে উঠেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। রোববার করেছেন ব্যাটিং-বোলিং অনুশীলন। এক ম্যাচ বাইরে থাকার পর আবার ফিরছেন আবাহনীকে টেনে ওপরে তোলার মিশনে। খালেদ মাহমুদ জানিয়েছেন রুবেল ছাড়া দলের সবাই খেলার জন্য ফিট।

‘সবাই মোটামুটি ফিট। শুধু রুবেল বাদে। রুবেল এখনো বোলিং করেনি। আমরাও রুবেলকে কোনো রকম জোর দিচ্ছি না। এতবছর যখন খেলছে, সে নিজের প্রতি সৎ। যখনই তৈরি হবে, তখন খেলবে। সামনে বিশ্বকাপ আছে, সেটাও আমাদের জন্য চিন্তার বিষয়। বাংলাদেশ বিশ্বকাপে খেলবে, এটা ক্লাব ক্রিকেট না, এটা দেশের ব্যাপার। গুরুত্ব বাংলাদেশের দিকেই যাবে। এখন যতটুক পারি বিশ্রাম দিয়ে, যদি সে বল করে ফিট মনে করে, ফিজিও যদি সবুজ সংকেত দেয়, তাহলে খেলবে। না হলে পরের ম্যাচে খেলতে পারবে কিনা; আমার সন্দেহ আছে।’