চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

দীর্ঘ ৮ বছর পর পটুয়াখালীতে পৌরসভা নির্বাচন

দীর্ঘ ৮ বছর পর ২৮ ফেব্রুয়ারি পটুয়াখালী পৌরসভা নির্বাচন হতে যাচ্ছে। শহরজুড়ে শেষ মুহূর্তের প্রচার চলছে। নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে ৪৩, সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ১৩ এবং মেয়র পদে ৫ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। 

বিজ্ঞাপন

২৬ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের পটুয়াখালী পৌরসভায় ৯টি ওয়ার্ডে মোট ভোটার ৪৫ হাজার ১শ’৭৭ জন। সবশেষ পটুয়াখালী পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১১ সালের ১৩ জানুয়ারি। ২০১৬ সালে মেয়াদপূর্তি হলেও সীমানা বাড়ানো ও মামলা জটিলতায় আটকে যায় নির্বাচন। নির্ধারিত সময়েরও তিন বছর পর এবার পৌর নির্বাচন হচ্ছে।

এখন নির্বাচন উপলক্ষে শহরের রাস্তা, পাড়া মহল্লা সর্বত্র প্রার্থীদের পোস্টারে ছেয়ে গেছে। ভোটারদের দৃস্টি আকর্ষণ ও সমর্থন আদায়ে মাইকিং, প্রচার মিছিল, উঠান বৈঠক ছাড়াও বিভিন্ন এলাকায় সৌজন্য সাক্ষাত ও শুভেচ্ছা বিনিময় করে ব্যস্ত সময় পার করছেন কাউন্সিলর প্রার্থীরা।

বিজ্ঞাপন

তবে মেয়র পদে ব্যাপক প্রচারণা, দলীয় জনপ্রিয়তাসহ নানা সমীকরণে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর দাবি তিনি এগিয়ে রয়েছেন। তাকে সমর্থন জানিয়ে কয়েক দিন আগে সতন্ত্র এক প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে বেসরকারিভবাবে সরেও দাঁড়িয়েছেন।

তবে নানা বাঁধা পেরিয়ে নানা কৌশলে হলেও প্রচারণার হাল ছাড়েননি অন্য সতন্ত্র প্রর্থীরা।

নির্বাচনী উত্তেজনায় গত ক’দিন বিচ্ছিন্ন কিছু অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটলেও এটি সাভাবিক মনে করে ভোটের দিন সুষ্ঠ শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট দিতে চান ভোটাররা।

রিটার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন অফিসার জিয়াউর রহমান খলিফা বলেন, সবার সহযোগিতায় পটুয়াখালী পৌরসভায় একটি সুন্দর ও সুষ্ঠু নির্বাচন করতে সকল প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

ভোটের দিন শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটাররা তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করতে পারবেন- এমনটি দেখতে চান পৌরবাসীসহ সংশ্লিষ্ট সকলে।