চ্যানেল আই অনলাইন
হৃদয়ে বাংলাদেশ প্রবাসেও বাংলাদেশ

তিন কোটি কর্মসংস্থানে বেকারত্বের অবসান ঘটানো হবে: প্রধানমন্ত্রী

২০৩০ সালের মধ্যে ৩ কোটি নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টির মধ্যদিয়ে দেশের বেকারত্বের অবসান ঘটানো হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেছেন: প্রযুক্তির ব্যবহারের কারণে শ্রমিকের চাহিদা অনেক কমে গেছে। এই অবস্থায় যুবকদের ব্যবসায় আগ্রহী করে তুলতে সরকার স্ট্যার্টআপ প্রোগ্রম হাতে নিয়েছে। 

শুক্রবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলনে অংশ নিয়ে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন: একদিকে শ্রমবাজারে বিপুল কর্মশক্তির আগমন, অন্যদিকে আধুনিক প্রযুক্তির ফলে শ্রমিকের চাহিদা কমে যাওয়ার বিষয়টি সরকার অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে গ্রহণ করেছে। সেই সঙ্গে এর সমাধান নানাবিধ পদক্ষেপ নিচ্ছে সরকার। শিল্পখাতে কর্মসৃজন বাড়ানোর লক্ষ্যে ব্যবসা ও বিনিয়োগ পরিবেশ আধুনিকায়ন শ্রমিকের সুরক্ষা জোরদার করা, জনগোষ্ঠীর অধিকহারে কর্মের প্রবেশের সুযোগ তৈরি তৈরিতে আইন-বিধিসহ নানা বিধেয় কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

“বিশেষ জনগোষ্ঠীর কর্ম পরিবেশ সৃষ্টির জন্য ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করা হয়েছে ২০১৯-২০ সালের বাজেটে। আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে তিন কোটি মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টির মাধ্যমে বেকারত্বের অবসান ঘটানো হবে এবং যুবকদের মধ্যে সকল প্রকার ব্যবসা উদ্যোগে আগ্রহী করে তুলতে ‘স্ট্যাটআপ’ বাস্তবায়নের জন্য চলতি (২০১৮-১৯) অর্থবছরে ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে।”

অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের অসুস্থতায় প্রথমবারের মতো বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিগত বছরগুলোতে বাজেটোত্তর সংবাদ সম্মেলন ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে হলেও এবারই প্রথম রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বিকাল ৩টায় সংবাদ সম্মেলন শুরু হয়।

সমৃদ্ধ আগামীর পথযাত্রায় বাংলাদেশ: সময় এখন আমাদের, সময় এখন বাংলাদেশের’ শিরোনামে ২০১৯-২০ অর্থবছরের জন্য ‘স্মার্ট’ বাজেট পেশ শুরু করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

নতুন অর্থবছরে বাজেটের প্রস্তাবিত আকার ধরা হয়েছে ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকা।